ফরিদগঞ্জে ধর্ষণের দায়ে পল্লী বিদ্যুতের শ্রমিক আটক

ফরিদগঞ্জ প্রতিবেদক:

চাঁদপুর ফরিদগঞ্জে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে কৌশলে অপহরণ করে এক কিশোরী(১৬)কে ধর্ষণের অভিযোগে মিজানুর রহমান (২৫) নামে এক পল্লী বিদ্যুতের ঠিকাদারের শ্রমিককে আটক করেছে পুলিশ।

এ ব্যাপারে ১৬ ডিসেম্বর বুধবার বিকালে কিশোরীটির পিতা বাদী হয়ে ফরিদগঞ্জ থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেছেন। আটককৃত মিজানুর রহমান পঞ্চগড় জেলার সদর উপজেলার গোয়ালঝাড় গ্রামের ইউছুফ গাজীর ছেলে।

থানায় মামলা সূত্রে জানা গেছে,মাস দু’য়েক পুর্বে চাঁদপুর পল্লীবিদ্যুৎ সমিতির আওতাধীন একটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের শ্রমিক হিসেবে মিজানুর রহমান ফরিদগঞ্জ পৌরসভাধীন সাফুয়া এলাকায় কাজ করার সময় পাশ্ববর্তী খেয়াঘাটের মাঝির মেয়ে ওই কিশোরীর সাথে পরিচয় হয়।

পরবর্তীতে ঐ পরিচয় সূত্র ধরে মুঠো ফোনে আলাপের এক পর্যায়ে গত ১ ডিসেম্বর রাতে মিজানুর রহমান ওই কিশোরীকে বিয়ের প্রলোভনে দেখিয়ে কৌশলে অপহরণ করে ঢাকায় নিয়ে যায়। সেখানে তার এক নিকটাত্মীয়ের বাসায় তাকে আটকে রেখে ধর্ষণ করে। পরে ওই কিশোরীটি পালিয়ে এসে তার পরিবারকে ঘটনা জানায়। তখন মান সন্মানের ভয়ে পরিবারের লোকজন কোনো প্রকার আইনের আশ্রয় গ্রহণ করেনি।

এরই মধ্যে মিজানুর রহমান ১৫ ডিসেম্বর মঙ্গলবার রাতে আবারো ঐ কিশোরীকে অপহরণের চেষ্টা করলে পরিবারের লোকজন টের পেলে সে পালিয়ে যায়।

পরে ১৬ ডিসেম্বর বুধবার ওই কিশোরীর পিতা বাদী হয়ে ফরিদগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করলে পুলিশ তাৎক্ষণিক অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত মিজানুর রহমানকে আটক করে।

এ বিষয়ে ফরিদগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ শহীদ অভিযুক্তকে আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের মামলা দায়ের করে আদালতে প্রেরন করা হয়েছে।

Recommended For You

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *