ফরিদগঞ্জে নবনির্বাচিত ইউপি সদস্যের শপথ গ্রহণ

চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ উপজেলায় ৫ম ধাপে ১৩ টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন গত ৫ জানুয়ারী অনুষ্ঠিত হয়েছে। ইউপি নির্বাচনে সদস্যপদে নির্বাচিত ৩৯জন সংরক্ষিত সদস্য এবং ১১৭ জন সাধারণ সদস্যকে শপথ বাক্য পাঠ করিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার শিউলী হরি।

১৭ ফেব্রুয়ারী বৃহস্পতিবার সকাল ১১টা ৩০ মিনিটে উপজেলা অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসার শিউলী হরির সভাপতিত্বে, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসের একাডেমিক সুপার ভাইজার আব্দুল্লাহ আল মামুনের পরিচালনায়, প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এ্যাড. জাহিদুল ইসলাম রোমান।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান জিএস তছলিম, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মাজুদা বেগম, জেলা পরিষদ সদস্য মশিউর রহমান মিটু, প্রেসক্লাবের সভাপতি কামরুজ্জামান, গোবিন্দপুর উত্তর ইউনিয়নের নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যান শাহ্ আলম শেখ ও বালিথুবা পূর্ব ইউনিয়নের নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যান হারুনুর রশীদ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে নব-নির্বাচিত চেয়াম্যান ও সদস্যদের উদ্দেশ্যে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এ্যাড. জাহিদুল ইসলাম রোমান বলেন, আপনারা হলেন স্থানীয় সরকারের মুল ভিত্তি, আপনারা স্ব-গৌরবে বলতে পারবেন আমরা জনগনের সমর্থন নিয়ে নির্বাচিত হয়েছি। স্থানীয় সরকারের যে উন্নয়ন তা আপনারা এগিয়ে নিয়ে যাবেন বলে আমারা সর্বোচ্চ আশা করি। সরকার ইউনিয়ন পরিষদের মাধ্যমে এখন অনেক বড় বড় কাজ করছেন। ইউনিয়ন পরিষদের সদস্যরাই সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ন দায়িত্ব পালন করছে।

তিনি আরো বলেন, আপনারা একটি অবাধ-সুষ্ঠ নির্বাচনের মধ্যদিয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। উপজেলা চেয়ারম্যান ও নির্বাহী অফিসার আমরা শুধু মাত্র সিদ্ধান্ত নিয়ে থাকি। আর আপনারা তা বাস্তবায়ন করেছেন। সরকারের অনেক গুরুত্বপূর্ন কাজ ও সিদ্ধান্ত আপনাদের কাছে। আপনারা দেশ প্রেমে উদ্ভুদ্ধ হয়ে আন্তরিতার সাথে আপনাদের দায়িত্ব পালন করবেন।
অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে উপজেলা নির্বাহী অফিসার শিউলী হরি বলেন, আমরা যে ভাবে সঠিক কাজটি করে আপনাদেরকে নির্বাচিত করেছি, আপনারা ঠিক সে ভাবেই সরকারের পক্ষ থেকে আপনাদের উপর অর্পিত দায়িত্ব সঠিক ভাবে পালন করবেন।

তিনি আরো বলেন, আপনারা কিন্তু সরকারের প্রতিনিধি হয়ে গেছেন। তার পূর্বে আপনাদের পারিবারিক ও রাজনৈতিক পরিচয় ছিল। আপনারা যেহেতু রাজনীতি এবং পারিবারিক গন্ডি থেকে বের হয়ে এসেছেন, আপনার সাথে কোন ব্যক্তির শত্রুতা থাকতে পারে সে পরিবারের একজন বিধবা অথবা প্রতিবন্ধী থাকতে পারে, সে যদি কোন ভাতার পাওয়ান যোগ্য হয়ে থাকে, তাহলে তার নামে অব্যশই ভাতার কার্ড দিতে হবে। আপনি তার সাথে কথা বলা বন্ধ রাখতে পারেন এইটা আপনার ব্যক্তিগত বিষয়। কিন্ত সরকারের দেওয়া সকল ধরনের সুযোগ সুবিধা তাদের দিতে আপনারা বাদ্য থাকবেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, জেলা পরিষদের সদস্য সাইফুল ইসলাম রিপন, বালিথুবা পশ্চিম ইউনিয়নের নব-নির্বাচিত চেয়াম্যান জসিম উদ্দিন স্বপন, সুবিদপুর পূর্ব ইউনিয়নের বেলায়েত হোসেন, সুবিদপুর পশ্চিম ইউনিয়নের মো. মহসীন হোসেন, গুপ্টি পূর্ব ইউনিয়নের শাহ জাহান পাটওয়ারী, গুপ্টি পশ্চিম ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বুলবুল আহমেদ, পাইকপাড়া উত্তর ইউনিয়নের আবু তাহের পাটওয়ারী, চরদুঃখিয়া পশ্চিম ইউনিয়নের মোঃ শাহজাহান, রূপসা উত্তর ইউনিয়নের কাউছারুল আলম কামরুল, প্রেসক্লাবের সাধারন সম্পাধক আবদুস সোবহান লিটন ও ১৩ ইউনিয়নের নব-নির্বাচিত সদস্যসহ আরো অনেকেই।

শেয়ার করুন: