ফায়ার সার্ভিস মানুষের বিপদের বন্ধু : এমিপ রুহুল

মনিরা আক্তার মনি :

মানুষ ফায়ার সার্ভিসকে বিপদের বন্ধু মনে করে মন্তব্য করে চাঁদপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য এ্যাড. নুরুল আমিন রুহুল বলেন, সড়কে বা নদীতে যেখানেই দুর্ঘটনা দেখেছি সেখানেই ফায়ার কর্মীরা সেবা দিয়ে মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন। আমি মনে করি এ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স এর কর্মীদের পেশাগত দক্ষতা বাড়বে এবং তাদের সঙ্গে জনসাধারণের সম্পৃক্ততা বাড়বে। এখানে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স ষ্টেশন নির্মিত হলে উপজেলাবাসীর জান ও মাল আগুনের ক্ষয়ক্ষতি থেকে রক্ষা পাবে।

রোববার (২৮ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে মতলব উত্তর উপজেলার ছৈয়ালকান্দিতে নির্মাণাধীন ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স ষ্টেশন পরিদর্শনকালে এ্যাড. নুরুল আমিন রুহুল এ কথা বলেন।

২ কোটি ৭৫ লাখ ৬৬ হাজার ৪৯৫ টাকা ব্যয়ে তিন তলা বিশিষ্ট মতলব উত্তর ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্স স্টেশন নির্মাণ কাজ বাস্তবায়ন করছে চাঁদপুর গণপূর্ত বিভাগ।

এ সময় মতলব উত্তর থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মুহাম্মদ শাহজাহান কামাল, ছেঙ্গারচর পৌরসভার প্যানেল মেয়র ও ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি আবদুল মান্নান বেপারী, আওয়ামী লীগ নেতা মোসলেম খান’সহ নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলা সৃষ্টির ২০ বছর পর ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্স স্টেশন পেয়ে আনন্দিত উপজেলাবাসী। উপজেলার ছৈয়ালকান্দি গ্রামে প্রধান সড়ক সংলগ্ন দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলছে নির্মাণ কাজ। সরকারের টেকসই উন্নয়ন বাস্তবায়নের লক্ষ্যে মানসম্মত কাজ করা হচ্ছে বলে জানায় ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান।

ছেঙ্গারচর পৌরসভা আওয়ামী লীগের সভাপতি হাসান কাইয়ুম চৌধুরী বলেন, দীর্ঘ ২০ বছর পরে মতলব উত্তরে ফায়ার সার্ভিস স্টেশন নির্মাণ হওয়ায় আমরা অত্যান্ত আনন্দিত। গত ২০ বছরে বহু এমপি মন্ত্রী আসছে গেছে। কিন্তু বর্তমান এমপি নুরুল আমিন রুহুল জনগণের চাহিদা বুঝতে পেরে একটা ফায়ার সার্ভিস স্টেশন নির্মাণের উদ্যোগ নেন, এজন্য মতলব উত্তরবাসীর পক্ষ থেকে তাকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানাই।

নুর হোসেন ও নাজির ভান্ডারী বলেন, বিগত দিনে আমাদের উপজেলায় আগুন লেগে অনেক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। এখন ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল স্টেশনটি নির্মাণ হলে আমরা এই সমস্যা থেকে পরিত্রাণ পাবো। তাই মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও এমপি মহোদয়ের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।

ছেঙ্গারচর পৌরসভার প্যানেল মেয়র ও ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি আঃ মান্নান বেপারী বলেন, সরকারের যে ভিশন টেকসই উন্নয়ন বাস্তবায়ন করার লক্ষ্যে কাজটি খুবই মানসম্মত ভাবে করা হচ্ছে। আশা করি আগামী জুন মাসের মধ্যে নির্মাণ কাজ শেষ করে ফায়ার সার্ভিসের হাতে বুঝিয়ে দিতে পারবো।

Recommended For You

About the Author: News Room

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *