বাগাদী ইউনিয়ন পরিষদের সকল কার্যক্রম অত্যন্ত স্বচ্ছতার সাথে হয়ে থাকে এবং তা অব্যাহত থাকবে :বাগাদী ইউপি চেয়ারম্যান

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি:

সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক), চাঁদপুরের সাথে বাগাদী ইউনিয়ন পরিষদের “করোনাকালীন ইউনিয়ন পরিষদের কার্যক্রম বাস্তবায়নে চ্যালেঞ্জ ও করণীয়” শীর্ষক অনলাইন মতবিনিময় সভা গতকাল ২০ ডিসেম্বর ২০২০ অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন সনাকের সভাপতি শাহানারা বেগম।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে বাগাদী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও বাংলাদেশ ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান সমিতির সভাপতি মোঃ বেলায়েত হোসেন বিল্লাল বলেন, স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত হলে রাষ্ট্রীয় সম্পদের অপচয় রোধ হবে। করোনাকালীন সংকটেও অত্যন্ত স্বচ্ছতা, জবাবদিহিতা ও আন্তরিকতার সাথে সাধ্যমত দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছি। সরকারের প্রণোদনা প্যাকেজের যারা উপকারভোগী তাদের নামের তালিকা পরিষদের তথ্যবোর্ডে টানিয়ে দেওয়া হয়েছে যাতেকরে জনসাধারণ তা সহজেই জানতে পারে। তিনি আরও বলেন, সরকারের সম্পদের সঠিক ব্যবহার নিশ্চিত করতে পারলে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা বৃদ্ধি পাবে। করোনাকালীন প্রতিকূল পরিস্থিতিতেও বিভিন্ন চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করে আমরা জনগণের সেবা দিয়ে যাচ্ছি। তিনি আরও বলেন, আমার মধ্যে একটা অতৃপ্তি কাজ করছে। কারন ইচ্ছা থাকা সত্ত্বেও সামর্থ্য ও সময়ের কারণে সেই অতৃপ্তিগুলো পূরণ করতে পারছি না। সনাকের একান্ত সহযোগিতার কারণে বাগাদী ইউনিয়ন পরিষদের সকল কার্যক্রম অত্যন্ত স্বচ্ছতার সাথে হয়ে থাকে এবং তা অব্যাহত থাকবে। স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করার জন্য সনাক-টিআইবি আমাকে ও আমার পরিষদকে সব সময় পরামর্শ ও সহযোগিতা দিয়ে যাচ্ছেন। আগামী দিনগুলোতেও পরিষদের সকল কার্যক্রমে সনাক-টিআইবি সহযোগিতা করে যাবে এই প্রত্যাশা করছি। পাশাপাশি তিনি জানুয়ারি বা ফেব্রুয়ারীতে শশরীরে সকলে একসাথে মিলিত হয়ে পরিষদের কার্যক্রম পর্যবেক্ষণ করার আহ্বান জানান।

শুভেচ্ছা বক্তব্যে সনাকের সাবেক সভাপতি ও সদস্য কাজী শাহাদাত বলেন, বাগাদী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সারা বাংলাদেশের ইউনিয়ন চেয়ারম্যান সমিতির সভাপতি নির্বাচিত হওয়ার পর তাকে সকল ইউনিয়ন পরিষদের সুবিধা অসুবিধাগুলোও দেখতে হয়। এটা আমাদের জন্য একটা গৌরবের বিষয়। এটা আমাদের একটা অর্জন। তিনি বলেন, করোনাকালীন সময়ে সরকারের ত্রান ও প্রণোদনা বিতরণ নিয়ে বহু ইউনিয়ন পরিষদের দুর্নীতির চিত্র আমরা দেখেছি। কিন্তু বাগাদী ইউনিয়নের কোন দুর্নীতির চিত্র আমরা এখনো দেখিনি। এজন্য তিনি ইউপি কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানান। করোনাকালীন এই দুর্যোগপূর্ণ সময়ে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, মেম্বার এবং সচিব ব্যক্তিগতভাবেও বহু অসহায় মানুষকে সহযোগিতা করেছেন। এজন্য তিনি সনাকের পক্ষ থেকে সবাইকে ধন্যবাদ জানান।

টিআইবি’র প্রোগ্রাম ম্যানেজার-সিই (কুমিল্লা ক্লাস্টার) মোঃ হুমায়ুন কবির বলেন, ইউপি কর্তৃপক্ষ করোনাকালীন সময়েও তাদের কাজের অগ্রগতিগুলো যেভাবে তুলে ধরেছেন তা সত্যিকারভাবে আমাদেরকে অনুপ্রাণিত করেছে। বিভিন্ন সীমাবদ্ধতা, জনগণের চাহিদা ও বিভিন্ন চাপসহ বহু প্রতিকূলতার মধ্যে থেকেও তিনি জনগণের সেবা দিয়ে যাচ্ছেন। করোনাকালীন সরকারের প্রণোদনা প্যাকেজের যে দুর্নীতি আমরা লক্ষ্য করেছি সেহিসেবে বাগাদী ইউনিয়ন পরিষদের এধরণের কোন দুর্নীতি আমাদের নজরে আসেনি। এজন্য তিনি বাগাদী ইউনিয়ন পরিষদকে ধন্যবাদ জানান। তিনি আরও জানান করোনাকালীন সময়ে সরকারের প্রণোদনা সহায়তাভোগীদের তালিকা তিনি যেভাবে তথ্যবোর্ডে টানিয়ে দিয়েছেন তার উদাহরণ আমি কুমিল্লা ক্লাস্টারের প্রতিটি ইউনিয়ন পরিষদে ছড়িয়ে দিয়েছি।

সভাপতির বক্তব্যে সনাকের সভাপতি শাহানারা বেগম বহু প্রতিকূলতার মধ্যে থেকেও এই করোনাকালীন সংকটে ইউনিয়ন পরিষদ কর্তৃপক্ষ যেভাবে অত্যন্ত স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার সাথে সেবা কার্যক্রম পরিচালনা করছেন এজন্য সনাক চাঁদপুরের পক্ষ থেকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান। তিনি বলেন, আমরা একটা দুঃসময়ের মধ্যে দিন কাটাচ্ছি। এ দুঃসময়ের মধ্যেও ইউনিয়ন পরিষদ কর্তৃপক্ষ যেভাবে কাজ করছে তা সত্যিকারভাবে প্রশংসার দাবিদার। তিনি সরকারের উপকারভোগীর নামের তালিকা টানিয়ে দেওয়া, ওয়েব পোর্টাল হালনাগাদ করা, উন্নয়নমূলক কার্যক্রম পরিচালনা করার কাজগুলো যেভাবে পরিষদ করছে এজন্য চেয়ারম্যানসহ তার সহকর্মীদের সনাক-টিআইবি’র পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জানান। তিনি অনলাইন ভার্চুয়াল সভায় অংশগ্রহণ করার জন্য সকলকে ধন্যবাদ জানান।

টিআইবি’র এরিয়া ম্যানেজার মোঃ মাসুদ রানার সঞ্চালনায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন সনাকের স্থানীয় সরকার বিষয়ক উপকমিটির আহ্বায়ক রফিক আহমেদ মিন্টু, বিগত সভার আলোচনা ও সুপারিশগুলো উপস্থাপন করেন টিআইবি’র এরিয়া ম্যানেজার মোঃ মাসুদ রানা।

বিগত সভার কার্যবিবরণীর উপর অগ্রগতি নিয়ে আলোচনা করেন পরিষদের সচিব মহিবুবুল আহসান নিপু। তিনি বলেন, বিগত সভার সুপারিশের আলোকে সরকারের প্রণোদনা প্যাকেজের যারা উপকারভোগী তাদের নামের তালিকা পরিষদের তথ্যবোর্ডে টানিয়ে দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও পরিষদের উন্নয়নমূলক কার্যক্রমসহ পরিষদের যাবতীয় সেবাসমূহ ইতিমধ্যে পরিষদের ওয়েব পোর্টাল হালনাগাদ করা হয়েছে। করোনাকালীন ইউনিয়ন পরিষদের নিয়মিত কার্যক্রম বাস্তবায়ন (প্রণোদনাসহ সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচির সুবিধাভোগী নির্বাচন ও বিতরণ, নাগরিক সেবা, দাপ্তরিক ও উন্নয়ন কার্যক্রম) ও চ্যালেঞ্জ বিষয়ে উম্মুক্ত আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন, ইউপি সদস্য মোঃ রিয়াজ উদ্দিন পাটওয়ারী, মোঃ মনির হোসেন, শাহানারা বেগম প্রমুখ।

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন, সনাক সদস্য মোঃ আব্দুল মালেক, সদস্য কৃষ্ণা সাহা, মোঃ আলমগীর পাটওয়ারী পরিষদের সদস্যবৃন্দ, ইউনিয়ন পরিষদের অন্যান্য কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ, সনাক-চাঁদপুরের ইয়েস গ্রুপের দলনেতা ও সহ-দলনেতাবৃন্দ এবং টিআইবি কর্মীবৃন্দ।

Recommended For You

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *