বেপরোয়া গতিই কেড়ে নিলো ২ এসএসসি পরীক্ষার্থীর প্রাণ

নিজস্ব প্রতিবেদক:

মোটর সাইকেল নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে দুই তরুণের প্রাণ গেছে, যারা এবার এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়েছিল।মঙ্গলবার (২৩ নভেম্বর) রাত সাড়ে ১০টায় চাঁদপুর-কুমিল্লা আঞ্চলিক মহাসড়কের মহামায়া এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন শান্ত (১৭) ও আসিফ (১৮)। ওই মোটরসাইকেলের আরেক আরোহী সাজ্জাদ (১৮) এবং পথচারী নুরুল ইসলামকে (৭০) গুরুতর আহত অবস্থায় ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেন চাঁদপুর সদর মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সুজন বড়ুয়া।

তিনি জানান, আমরা খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছি। একজনের মরদেহ হাসপাতাল থেকে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। বিস্তারিত আমরা আরও খোঁজখবর নিচ্ছি।
পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ৩ যুবক বেপরোয়া গতিতে মোটরসাইকেল নিয়ে মহামায়া বাজার এলাকায় ছুটে যাচ্ছিল। এ সময় মোটরসাইকেল চালক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বীর মুক্তিযোদ্ধা নজরুল ইসলামের গায়ে সজোরে ধাক্কা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই শান্ত নামের যুবকের মৃত্যু হয়। দুর্ঘটনায় মোটরসাইকেলের অপর দুই আরোহীসহ পথচারী গুরুতর আহত হয়। স্থানীয়রা আহতদের চাঁদপুর সরকারি হাসপাতালে প্রেরণ করে।

চাঁদপুর সরকারি হাসপাতালের ডা. রোমান বলেন, দুর্ঘটনায় শান্ত নামের ছেলেটির শরীরের বিভিন্ন স্থানে গুরুতর জখম এবং রক্তক্ষরণের ফলে তার মৃত্যু হয়। এছাড়া আহত বাকি তিনজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক দেখে আমরা ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করি।

পরে তাদের অবস্থা আশঙ্কাজনক দেখে চাঁদপুর থেকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। এতে পথিমধ্যে আসিফের মৃত্যু হয়। নিহত শান্ত চাঁদপুর সদর উপজেলার হাফানিয়া গ্রামের নজরুল ইসলামের ছেলে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ৩ যুবক বেপরোয়া গতিতে মোটরসাইকেল নিয়ে মহামায়া বাজার এলাকায় ছুটে যাচ্ছিল। এ সময় মোটরসাইকেল চালক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বীর মুক্তিযোদ্ধা নজরুল ইসলামের গায়ে সজোরে ধাক্কা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই শান্ত নামের যুবকের মৃত্যু হয়। দুর্ঘটনায় মোটরসাইকেলের অপর দুই আরোহীসহ পথচারী গুরুতর আহত হয়। স্থানীয়রা আহতদের চাঁদপুর সরকারি হাসপাতালে প্রেরণ করে।

চাঁদপুর সরকারি হাসপাতালের ডা. রোমান বলেন, দুর্ঘটনায় শান্ত নামের ছেলেটির শরীরের বিভিন্ন স্থানে গুরুতর জখম এবং রক্তক্ষরণের ফলে তার মৃত্যু হয়। এছাড়া আহত বাকি তিনজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক দেখে আমরা ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করি।

চাঁদপুর মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) সুজন কান্তি বড়ুয়া বলেন, আমরা খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছি। একজনের মরদেহ হাসপাতাল থেকে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। বিস্তারিত আমরা আরও খোঁজখবর নিচ্ছি।

Recommended For You

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *