ভাষা আন্দোলনের পথ ধরেই আমরা স্বাধীনতা পেয়েছি: নাছির উদ্দিন আহমেদ

নিজস্ব প্রতিবেদক:

“আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি আমি কি ভুলিতে পারি”। একুশে ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ও শহীদ দিবস বাঙালি জাতির চেতনার এই বিশেষ দিনটি যথাযোগ্য মর্যাদায় উদযাপন করেছে চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগ এ উপলক্ষে দলটি বিভিন্ন কর্মসূচির আয়োজন করে।

মহান ২১ ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে জাতীয় পতাকা, দলীয় পতাকা, কালো পতাকা উত্তোলন আলোচনা সভা ও দোয়া অনুষ্ঠান শেষে শহীদ মিনারে ভাষা শহীদদের স্মরণে জেলা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করেন চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নাছির উদ্দিন আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযুদ্ধা আবু নঈম পাটওয়ারী দুলাল।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ইঞ্জিঃ আব্দুর রব ভূঁইয়া,আব্দুর রশিদ সরদার, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আহসান উল্লাহ আখন্দ, অ্যাডঃ জহিরুল ইসলাম, আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডঃ রুহুল আমিন সরকার, দপ্তর সম্পাদক শাহ আলম মিয়া, সদস্য অ্যাডঃ বদিউজ্জামান কিরণ, গাজী বেলায়েত হোসেন বিল্লাল, জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক শ্রমবিষয়ক সম্পাদক রফিকুল ইসলাম ভূঁইয়া, সদস্য অ্যাডঃ জসিম উদ্দিন পাটোয়ারী,পৌর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সাব্বির হোসেন মন্টু দেওয়ান,কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম ভূঁইয়া, শ্রমবিষয়ক সম্পাদক মঞ্জুরুল ইসলাম মঞ্জু,জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক মিজানুর রহমান কালু ভূঁইয়া, জেলা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক ফেরদৌস মোরশেদ জুয়েল, জেলা শ্রমিক লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহবুবুর রহমান, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ওহিদুর রহমান,মহিলা আওয়ামীলীগের রেনু বেগম, পৌর মহিলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মনি বেগমসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।

একুশের আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্য নাছির উদ্দিন আহমেদ বলেন, ভাষা আন্দোলনের পথ ধরেই আমরা আমাদের স্বাধীনতা পেয়েছি।৭৫’ সালে বঙ্গবন্ধু রক্ত দিয়ে জীবন দিয়ে প্রমাণ করেছেন তিনি এদেশের মানুষকে ভালোবাসেন। আজকে আমাদেরকে একুশের শপথ নিতে হবে। আমরা যেন বঙ্গবন্ধুর রক্তের ঋণ, বায়ান্নর ভাষা আন্দোলনে যারা বুকের তাজা রক্ত ঢেলে দিয়ে আমাদের মাতৃভাষাকে রক্ষা করেছে তাদের ঋণ শোধ করবো। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে উন্নত সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ার কাজে আমরা আরো এগিয়ে যাবো।

নাছির উদ্দিন বলেন, ঐক্যবদ্ধ থাকা ছাড়া কোনো কিছুর অর্জন সম্ভব নয়।আমরা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ আছি।

তিনি বলেন, অন্যায়ের বিরুদ্ধে মাথা নত না করতে একুশ আমাদের শিক্ষা দিয়েছে। আজকে জননেত্রী শেখ হাসিনার কারণে উন্নত সমৃদ্ধ বাংলাদেশ আমরা পাচ্ছি।এজন্য তিনি দুর্নীতি মাদক সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স ঘোষণা করেছেন।

আজকে দুর্নীতির বিরুদ্ধে কথা বললে অনেকের গা জ্বলে। এদেশের মানুষ দুর্নীতির জন্য নয়, ন্যায় প্রতিষ্ঠার জন্য রক্ত দিয়েছে। আমরা দুর্নীতির বিরুদ্ধে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে রুখে দাঁড়াবো, তারা যে কেউ হোক। মানুষের সম্পদ, দেশের সম্পদ গুটিকয়েক লোক লুটপাট করতে না পারে। অন্যায়ের বিরুদ্ধে কথা বলতে হবে।

নাছির উদ্দিন আহমেদ বলেন, সাংবাদিক সমাজ সবসময় অন্যায়ের বিরুদ্ধে সোচ্চার। সেখানে দেখা যায়, অন্যায়ের বিরুদ্ধে কথা বলা হয় না। মানুষের সম্পদ লুটপাট হচ্ছে কোন কথা বলা হয় না এটা অত্যন্ত দুঃখজনক।

তিনি বলেন,সাংবাদিকরা জাতির বিবেক। যেটা সঠিক লিখে যান, সেটা আমার বিরুদ্ধেও হয়। কারণ আমরা রাজনীতি করি ভুলভ্রান্তি আমাদেরও হতে পারে।

একুশ উদযাপন এ কর্মসূচিতে আওয়ামী লীগ, যুবলীগ-ছাত্রলীগ, মহিলা আওয়ামী লীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, শ্রমিক লীগের বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার করুন: