মতলবের মরাদোন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ঝুঁকি নিয়ে ক্লাস করছে শিক্ষার্থীরা

মতলব উত্তর উপজেলা ৬নং বড় মরাদোন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে পাঠ নিচ্ছে কোমলমতি শিক্ষার্থীরা। সরেজমিন দেখা যায়, দ্বিতীয় এবং তৃতীয় শ্রেণির পাঠদান কক্ষের ভিমের পলেস্তারা খসে টেবিলে পড়ে আছে। শুধু তাই নয় অফিস কক্ষের চিত্রও একই রকম।

জানা গেছে, সরেজমিন পরিদর্শনে এসেছিলেন সহকারী উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মোহাম্মদ অলি উল্লাহ। বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণির ছাত্র তানজিলা ও সিফাত বলে আমাগো ক্লাস করতে খুব ভয় লাগে। কখন ছাদ ভেঙ্গে ওপরে পড়ে। বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা বলেন, আমরা আতঙ্কে আছি। আমরা নিরাপদ নই। আমাদের অফিস কক্ষের ছাদের পলেস্তারা খসে পড়ছে। এ ছাড়াও বৃষ্টি হলে পূর্ব পাশের ভবনের ছাদ চুঁইয়ে পানি পড়ে।
বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক খোকন চন্দ্র দাস বলন, শিক্ষক ছাত্রছাত্রী আমরা সবাই খুবই ভয়ে দিন কাটাই। কখন জানি ছাদ ভেঙে দুর্ঘটনা ঘটে।

বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মোয়াজ্জেম হোসেন সরকার বলেন, অতি দ্রুত একটি ভবন নির্মাণ প্রয়োজন। এভাবে ঝুঁকি নিয়ে কাজ করা যায় না।

বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সহ-সভাপতি তানভীর আহমেদ সরকার বলেন, ছাত্রছাত্রীদের পড়াশোনার কথা বিবেচনা করে স্থানীয় সংসদ সদস্যের কাছে একটি ভবন নির্মাণের দাবি জানাচ্ছি।

মতলব উত্তর সহকারী উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মো. অলিউল্লহ বলেন, আমি সরেজমিন বিদ্যালয় ঘটনার সত্যতা পেয়েছি। তবে বিদ্যালয় দ্রুত মেরামতের জন্য ২ লাখ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।

মতলব উত্তর উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা ইকবাল হোসেন ভূঁইয়া বলেন, আমি বিদ্যালয়টি সরেজমিন পরিদর্শন করে, সহকারী উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তাকে দায়িত্ব দিয়েছি।

উল্লেখ্য, ৬নং বড় মরাদোন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়টি ১৯৭১ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। বিদ্যালয়ের লেখাপড়ার মান খুবই ভালো।

Recommended For You

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *