মতলবে করোনা রোগীদের সেবায় “লোটাস- বাড চ্যারিটি ফোরাম” এক ফোন কলেই মিলছে ফ্রি অক্সিজেন সেবা

মোঃ আকতার হোসেন :

চাঁদপুরের প্রতিটি উপজেলায় করোনা সংক্রমণ পরিস্থিতি ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে। সদর হাসপাতালে রোগীদের চিকিৎসা দেয়ার স্থান সংকটে ত্রাহি ত্রাহি অবস্থা। সংক্রমণ ও মৃত্যুর মিছিল প্রতিদিনই দীর্ঘ হচ্ছে। অক্সিজেনের অভাবে সকলকে হাসপাতালের সেবার আওতায়ও আনা যাচ্ছে না।

এমন পরিস্থিতিতে করোনা রোগীদের অক্সিজেন সিলিন্ডার দিয়ে মানবতার সেবায় নিয়োজিত রয়েছে মতলব দক্ষিণের স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন “লোটাস বাড চ্যারিটি ফোরাম”। তাদের হট লাইনে এক ফোন কলেই মিলছে ফ্রী অক্সিজেন সেবা। মুমূর্ষ রোগীর পরিবারের পাশে থেকে চিকিৎসকের পরামর্শে সেবায় সম্পৃক্ত আছে সংগঠনের কয়েকজন নিবেদিত সদস্য।

দেখা গেছে, মতলব দক্ষিণ উপজেলায় হু হু করে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। প্রতিটি গ্রামে প্রাণঘাতী এই ভাইরাস দ্রুত ছড়িয়ে পড়ায় তীব্র শ্বাসকষ্টজনিত রোগীর সংখ্যা দ্রুত বাড়ছে, ফলে অক্সিজেন সংকট প্রকট আকার ধারণ করেছে।

করোনা আক্রান্ত এ সকল মুমূর্ষু রোগীদের তৎক্ষনাৎ সেবা দেওয়ার লক্ষ্যে মতলব দক্ষিণ উপজেলাস্থ নারায়ণপুর পৌরসভার সামাজিক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘‘লোটাস-বাড চ্যারিটি ফোরাম’’ গত ২রা অগাস্ট ২০২১ ‘নারায়ণপুর অক্সিজেন ব্যাংক’ নামে বিনামূল্যে জরুরি অক্সিজেন সেবা কার্যক্রম চালু করেছে। এক সঙ্গে বৃহৎ পরিসরে দ্রুত সেবা দেওয়ার লক্ষ্যে সংগঠনটির সাথে যৌথভাবে কাজ করছে অপর একটি স্বেচ্ছাসেবা সংগঠন ‘অনির্বাণ সমাজকল্যাণ ফাউন্ডেশন’। আর এই মহৎ উদ্যোগটির প্রধান সমন্বয়ক হিসেবে কাজ করছে পৌরসভার ব্যবসায়ী, শিক্ষানুরাগী মিঞা মোঃ মামুন।

করোনা আক্রান্ত কোনো রোগী বা রোগীর স্বজন তাঁদের হটলাইন নম্বরে ফোন করে ঠিকানা দিলে মুহুর্তের মধ্যেই বাসায় অক্সিজেন সিলিন্ডার নিয়ে পৌছে যায় সংগঠনের প্রশিক্ষিত তরুণপ্রাণ স্বেচ্ছাসেবীরা। পালস অক্সিমিটারে করোনা পজিটিভ রোগীর রক্তে অক্সিজেন স্যাচুরেশন ও হৃদস্পন্দনের হার অস্বাভাবিক দেখলেই তাঁরা রোগীর মুখে অক্সিজেন মাস্ক লাগিয়ে কিছু সময় ধরে পর্যবেক্ষণ করে।

অক্সিজেন সিলিন্ডার সেবা কার্যক্রমে সংগঠনের সদস্য মির্জা তামজীদ, মির্জা হাবিব, রিয়াদ হাসান, রাকিবুল ইসলাম, শাহাদাত হোসেন, রবিউল ইসলাম, নূরে আলমসহ অনেকে কাজ করছেন।

গত ৩রা অগাস্ট, মঙ্গলবার থেকে শুরু করে আজ পর্যন্ত লোটাস-বাড চ্যারিটি ফোরামের স্বেচ্ছাসেবীরা অন্তত ১৩+ জন রোগীকে তাঁদের অক্সিজেন সেবার আওতায় এনেছে। এছাড়া অক্সিজেন সেবার পাশাপাশি সংগঠনটি হতদরিদ্র রোগীদের রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে ‘‘লোটাস-বাড ফুড এ মেডিসিন এইড’’ নামে আলাদা একটি প্রকল্প চালু করে প্রয়োজনীয় খাদ্য, ফলমূল ও প্রাথমিক চিকিৎসার জন্য মেডিসিন কিংবা নগদ অর্থ প্রদান করে ঔদার্যের পরিচয় দিয়ে আসছে।

প্রসঙ্গত, স্বেচ্ছাসেবা সংগঠন ‘লোটাস-বাড চ্যারিটি ফোরাম’ ২০০৯ সাল থেকে অদ্যাপি পৌর নারায়ণপুরে বছরব্যাপী দারিদ্র্য বিমোচন প্রকল্প, রক্তদান, বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি, শীতবস্ত্র বিতরণ ও দুর্যোগকালীন সময়ে ত্রাণসামগ্রী বিতরণ ও শিক্ষা উপকরণ বিতরণসহ বহুমুখী কার্যক্রম পরিচালনা করে সাধারণ মানুষের ব্যাপক প্রশংসা কুড়িয়েছে।

এদিকে কার্যক্রম বিষয়ে সংগঠনের প্রধান উপদেষ্টা মোঃ জুয়েল সরকার বলেন, আমরা এ মহামারির সময়ে গ্রামীণ প্রত্যন্ত অঞ্চলে করোনা রোগীদের জরুরী অক্সিজেন সেবা দিয়ে গরীব অসহায় পরিবারের পাশে থাকার চেষ্টা করছি। আমাদের সকল সেবামূলক কাজ এলাকার মানুষের কল্যাণে অব্যাহত রাখার চেষ্টা করবো।

Recommended For You

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *