মতলবে ঝুঁকিপূর্ণ ভবনে চলছে পাঠদান

নিজস্ব প্রতিবেদক:

ঝুঁকিপূর্ণ ভবনে কোমলমতি শিক্ষার্থীদের ঝুঁকি নিয়ে পাঠদান করাচ্ছেন শিক্ষকরা। যে কোনো সময়ে ভবন ধসে পড়ার আশঙ্কা তাদের। এমনই অভিযোগ মতলব দক্ষিণ উপজেলার ১৪৮ নং উত্তর দৌলতপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও অভিভাবকদের।

সরেজমিনে জানা যায়, ১৯৭৩ সালে প্রতিষ্ঠিত হওয়া এই বিদ্যালয়ের জন্য ২০০২ সালে সরকারি ভাবে ভবন নির্মাণ করা হয়। এছাড়া পুরনো একটি টিনের ঘরও রয়েছে পাঠদানের জন্য। বিদ্যালয়ে বর্তমানে ৫ জন শিক্ষকের বিপরীতে শিক্ষার্থী রয়েছে ১শত ৩৩ জন। বর্তমানে বিদ্যালয় ভবনের দেয়াল ও ছাদ থেকে আস্তর ভেঙ্গে পড়ছে প্রতিনিয়ত। শ্রেণি কক্ষের মেঝে ডেবে গিয়ে ফাটলের সৃষ্টি হয়েছে। সেই সাথে বৃষ্টি এলেই ছাদ ছুয়ে পানি শ্রেণি কক্ষে ঢুকে সয়লাভ হয়ে যায়। এছাড়া টিনের ঘরে চারপাশে নেই কোনো বেড়া। এছাড়া বিদ্যালয়টি পাশে রয়েছে যান চলাচলের সড়ক, কিন্তু সীমানা প্রাচীর নেই। এতে ঝুঁকিতে রয়েছে শিক্ষার্থীরা।

স্থানীয়রা অভিযোগ করে বলেন, যখন এই বিদ্যালয় ভবন নির্মাণ কাজ করা হয়, সেই সময়ে ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান নিন্মমানের সামগ্রী ব্যবহার করে। ওই সময়ে তাদের ভালো ভাবে কাজ করার জন্য তাগিদ দিলেও তারা কোন কর্নপাত করেনি। এছাড়া সরকারি কাজের তদারকির দায়িত্বে থাকা সরকারি কর্মকর্তাগণ সবকিছু দেখেও না দেখার ভান করে ছিলেন। যার ফলে ১৭ বছরেই বিদ্যারয় ভবনটি পরিত্যক্ত হয়ে পড়ছে।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জীবন নাহার বলেন, আমাদের বিদ্যালয় ভবনের জরাজীর্ণের কথা উপজেলা শিক্ষা অফিসকে জানিয়েছি। বর্তমানে আমরা ঝুঁকি নিয়ে শিক্ষার্থীদের পাঠদান করাচ্ছি ।

বিদ্যালয়ের সভাপতি বলেন, আমরা চাই অতি দ্রুত সরকার আমাদের এই বিদ্যালয়টি জন্য নতুন ভবন ও সীমানা প্রাচীর নির্মাণ করার ব্যবস্থা নিবে।

Recommended For You

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *