মতলবে মন্দিরে চুরির ঘটনায় পুলিশ সুপারের পরিদর্শন

নিজস্ব প্রতিবেদক:

চাঁদপুর মতলব দক্ষিণে হিন্দু সম্প্রদায়ের একটি মন্দিরের তালা ভেঙে কে বা কারা মন্দিরটির ভেতরে রাখা বেশ কয়েকটি খোদাই করা ছোট মূর্তি (বিগ্রহ) ও অন্যান্য জিনিসপত্র চুরি করে নিয়ে যায়।

১৮ জানুয়ারি সোমবার দিবাগত রাত তিনটায় উপজেলার বোয়ালিয়া এলাকায় শ্রী কালিয়কান্ত জিউর মন্দিরে এ ঘটনা ঘটে। সংবাদ পেয়ে চাঁদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার, এএসপি (মতলব সার্কেল) মতলব দক্ষিণ থানা পুলিশ এবং উপজেলা পূজা উদ্যাপন কমিটির নেতৃবৃন্দ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। এ ব্যাপারে ১৬ জানুয়ারি মঙ্গলবার বিকেলে থানায় মামলা হয়েছে।

পুলিশ, মামলাটির এজাহার ও স্থানীয় সূত্র জানায়, সোমবার দিবাগত রাত তিনটায় একদল চোর ওই মন্দিরের তালা ভেঙে ভেতরে প্রবেশ করে। এরপর তারা মন্দিরটির ভেতরে রাখা পিতলের তৈরি দুটি রাধাকৃষ্ণের বিগ্রহ, দুটি গোপাল বিগ্রহ, শিলের তৈরি নারায়ণের একটি বিগ্রহ, তিনটি রূপার বাঁশি, তিনটি চূড়া ও এক আনা ওজনের একটি স্বর্ণের টিপ তুলসিসহ আরও জিনিসপত্র চুরি করে পালিয়ে যায়।

মঙ্গলবার সকাল ছয়টায় ওই মন্দিরের সেবাইত ও অন্যান্য লোকজন সেখানে গিয়ে মন্দিরটির বাহিরের তালা ভাঙা এবং এর ভেতরের জিনিসপত্র তছনছ অবস্থায় দেখতে পান। তাঁরা ঘটনাটি মতলব দক্ষিণ থানায় জানালে গতকাল মঙ্গলবার সকাল সাতটায় থানা-পুলিশের কয়েকজন কর্মকর্তা ও সদস্য ঘটনাস্থলে যান। এ সময় ঘটনাস্থলের আশপাশ থেকে চুরি হওয়া কিছু মালামালও উদ্ধার করেন তাঁরা।

ওই মন্দিরের পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক সুধাংশ সাহা অভিযোগ করেন, উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে মন্দিরটির তালা ভেঙে এ চুরির ঘটনা ঘটানো হয়েছে। এটি একটি ন্যাক্কারজনক ঘটনা এবং ধর্মীয় অনুভ‚তিতে আঘাত হানার শামিল। ঘটনাটির সঙ্গে জড়িত ব্যক্তি বা ব্যক্তিদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেন তিনি।

মতলব দক্ষিণ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহিউদ্দিন মিয়া বলেন, এ ঘটনায় গতকাল বিকেলে ওই মন্দিরের পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক সুধাংশ সাহা বাদি হয়ে অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিদের আসামি করে থানায় একটি চুরির মামলা দায়ের করেন। ঘটনাটির তদন্ত চলছে। চুরি হওয়া সব মালামাল উদ্ধার এবং ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের খুঁজে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। চাঁদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ ও প্রশাসন) কাজী আব্দুর রহিম ও জ্যেষ্ঠ সহকারী পুলিশ সুপার (মতলব সার্কেল) আহসান হাবিব ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

Recommended For You

About the Author: News Room

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *