মতলবে ৭০ দিন পর কবর থেকে লাশ উত্তোলন

আক্তার হোসেন:

মতলব দক্ষিণ উপজেলার ঘোনা গ্রামের খলিলুর রহমানের ছেলে মজিবুর রহমান (৪০) নামের এক রেষ্টুরেন্ট মালিকের লাশ ওই গ্রামের হাজী বাড়ি কবরস্থান থেকে ২ মাস ১০ দিন পর উত্তোলন করা হয়।

মুন্সিগঞ্জ জেলার বিজ্ঞ সিনিয়র আদালতের নির্দেশক্রমে মতলব দক্ষিণ উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভুমি) সেটু কুমার বড়ুয়া, মুন্সিগঞ্জ সদর থানা ও মতলব দক্ষিণ থানা পুলিশের উপস্থিতিতে শনিবার ২ জুলাই দুপুরে এ লাশ উত্তোলণ করা হয়।

গত ২২ এপ্রিল মুন্সিগঞ্জে বিদ্যুৎ পৃষ্টে মারা গেছেন এমনটি জানানো হয় তার পরিবারকে এবং গ্রামের বাড়ীতে এনে দাফন করা হয়েছিল।

কিন্তু লাশের সাথে মুজিবুরের স্ত্রী না আসায় জনমনে সন্দেহ সৃষ্টি হয়। পরে মজিবুরের বাবা খলিলুর রহমান বাদী হয়ে রিনা বেগম,রেস্টুরেন্টের কর্মচারী শাওন সহ আরো অজ্ঞাত ৬ জনকে আসামী করে মুন্সিগঞ্জ বিজ্ঞ সিনিয়র আদালতে একটি মামলা দায়ের করে। পরে বিজ্ঞ আদালত লাশের ময়নাতদন্তের নির্দেশ দিলে শনিবার সকালে মজিবুরের লাশ কবর থেকে উত্তোনল করা হয়।

মজিবুরের বোন খাদিজা আক্তার বলেন,‘ ভাইকে ভাবী তার লোকজন নিয়া মেরেছে। তারা মৃত্যুর খবর পর্যন্ত দেয়নি।’

এ বিষয়ে মামলার বাদী খলিলুর রহমান ছেলের সম্পত্তি আত্মসাৎ করার জন্য রিনা বেগম,শাওন ও আরো কয়েকজন মিলে পরিকল্পিতভাবে তার ছেলেকে হত্যা করেছে। হত্যা কারীদের দৃষ্টান্তমূলক বিচার এবং ফাঁসি চান।

নির্বাহী ম্যাজিস্টেট ও মতলব দক্ষিণ উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি সেটু কুমার বড়ুয়া বলেন, মুন্সিগঞ্জ বিজ্ঞ সিনিয়র আদালত ও চাঁদপুরের সিনিয়র ম্যাজিস্টেটের নির্দেশ ক্রমে মজিবুরের লাশ কবর থেকে উত্তোলন করা হয়েছে। ময়না তদন্তের জন্য চাঁদপুর মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। ময়না তদন্ত শেষে পুনরায় এখানে আবার দাফন করা হবে।

শেয়ার করুন: