মতলব উত্তরে লেংটার মেলা বন্ধ ঘোষণা

মনিরা আক্তার মনি :

চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার বদরপুর বেলতলী এলাকায় প্রতি বছর যে ‘লেংটার মেলা’ নামে হযরত শাহ সোলায়মান (র.)-এর ওরশ মাহফিল হতো, তা গত বছরের ন্যায় এ বছর অর্থাৎ প্রতি বছরের নির্ধারিত সময়ে হচ্ছে না। আর সেই নির্ধারিত সময়টি হচ্ছে ১৭ চৈত্র থেকে ২৩ চৈত্র। বিশ্বব্যাপী মহামারি আতঙ্ক করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে রক্ষার জন্যে প্রশাসন থেকে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

চাঁদপুরের জেলা ম্যাজিস্ট্রেট ও জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিস জেলার মাসিক আইন-শৃঙ্খলা সভায় সিদ্ধান্ত নিয়ে ওরশ মাহফিল কর্তৃপক্ষকে জানিয়ে দেয়। হযরত শাহ সোলায়মান (র.) দরবার শরীফের সভাপতি মো. মতিউর রহমানের (লাল মিয়া) নিকট ওরশ মাহফিল বন্ধ রাখার নির্দেশনা দেয়া হয়।

প্রতি বছর ১৭ চৈত্র থেকে মতলব উত্তরের বেলতলীতে হযরত শাহ সোলায়মান (রঃ) ওরফে লেংটা ফকিরের ওরশ মাহফিল হয়ে থাকে। যেটি লেংটার মেলা নামেই পরিচিত। এবার এই মেলা উদ্যাপনের তারিখ হচ্ছে ৩১ মার্চ থেকে ৬ এপ্রিল। সপ্তাহব্যাপী এ মেলায় সারাদেশ থেকে অগণিত ভক্ত নারী-পুরুষ আসে। সব মিলিয়ে লক্ষাধিক লোকের সমাগম ঘটে মেলায়। প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষের সমাগম থাকে মেলায়।

এদিকে বর্তমানে বাংলাদেশ’সহ বিশ্বব্যাপী চলছে করোনা ভাইরাস নামে এক মহামারির আতঙ্ক। এ ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে বাঁচার জন্যে সারাদেশে সকল ধরনের সমাবেশ নিষিদ্ধ করা হয়েছে। আর এই নির্দেশনাটি মহামান্য হাইকোর্ট থেকে দেয়া হয়েছে। পরিস্থিতির ভয়াবহতা থাকায় সরকার সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দিয়েছে। পর্যটন স্পটগুলোতেও অবকাশ যাপন বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। এতো সব পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে এজন্য যে, যাতে করে মহামারিরূপী করোনা ভাইরাস কোনোভাবেই ছড়াতে না পারে। আর এ লক্ষ্যেই মতলব উত্তরের লেংটার মেলার অনুমতি দেয়া হয়নি প্রশাসন থেকে।কারণ, সেখানে লক্ষাধিক লোকের সমাগমের কারণে করোনা ভাইরাস নামে মহামারিটি ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা ছিলো। শুধু লেংটার মেলাই নয়, এছাড়া অন্যান্য ওয়াজ মাহফিল, সভা-সমাবেশ, জমায়েত সবকিছুই নিষিদ্ধ করেছে সরকার।

চাঁদপুরের স্থানীয় প্রশাসনের নিষেধাজ্ঞাকে স্বতঃস্ফূর্তভাবেই মেনে নিয়েছে মেলা কর্তৃপক্ষ। শাহ সোলায়মান দরবারের খাদেম মো. মতিউর রহমান লাল মিয়াকে প্রশাসন থেকে বলে দেয়া হয়েছে আগে থেকেই যেনো তাদের ভক্তদের নিষেধ করে দেয়া হয় বেলতলী মাজারের উদ্দেশ্যে না আসার জন্যে এবং এখনই যেনো পর্যাপ্ত ব্যানার লাগিয়ে জানিয়ে দেয়া হয় যে, ওরশ মাহফিল তথা লেংটার মেলা হচ্ছে না। পরিস্থিতি পুরোপুরি স্বাভাবিক হলে পরে প্রশাসনই দেখবে মেলা তথা ওরশ মাহফিল করা যাবে কি যাবে না।

এ বিষয়ে সোলেমান লেংটার মাজারের খাদেম মতিউর রহমান লাল মিয়া জানান, অন্যান্য বছরের ন্যায় এ বছরও ১৭ চৈত্র মেলা শুরু হওয়ার কথা ছিল। ইতোমধ্যে সবধরনের প্রস্তুতি নেয়া হয়েছিল। কিন্তু বিশ্বব্যাপী করোনা ভাইরাস মহামারী প্রতিরোধে এবার লেংটার ওরশ মাহফিল বন্ধ করেছে প্রশাসন। এ সংক্রান্ত একটি নোটিশ দিয়েছে উপজেলা প্রশাসন। লাল মিয়া আরও বলেন, লেংটার মেলায় লাখ লাখ মানুষের সমাগম ঘটে। দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে লেংটার ভক্তবৃন্দ এসে মেলায় যোগদান করেন। কিন্তু দেশ ও জাতির স্বার্থে সরকারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আপাতত এ বছর মেলা বন্ধ রাখা হয়েছে।

মতলব উত্তর থানার অফিসার ইনচার্জ মুহাম্মদ শাহজাহান কামাল বলেন, করোনা মহামারির দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবেলায় করতে সরকার মেলা বন্ধ ঘোষনা করেছে। করোনা ঝুঁকি প্রতিরোধে সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বেশি লোকের সমাগম ঘটে এমন কার্যক্রম করা যাবে না। সোলেমান লেংটার মেলায় লক্ষ লক্ষ লোকের সমাগম ঘটে। তাই দেশ ও জাতির স্বার্থে সরকারের নির্দেশে মেলা বন্ধ করা হয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার ¯েœহাশীষ দাশ বলেন, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে মানুষকে রক্ষার লক্ষ্যে জেলা প্রশাসনের নির্দেশে শাহ্ সোলেমান লেংটার মেলা এ বছর বন্ধ রাখা হয়েছে। তিনি আরও বলেন, দেশ ও জাতির স্বার্থে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সকলকে সচেতন হওয়া জরুরি।

Recommended For You

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *