মতলব দক্ষিণে মাদ্রাসার ছাত্রের মাথাবিহীন লাশ উদ্ধার

গোলাম সারওয়ার সেলিম:

চাঁদপুরের মতলব দক্ষিণ উপজেলার নায়েরগাঁও উত্তর ইউনিয়নের নন্দীখোলা সিনিয়র ফাজিল মাদ্রাসার ৯ম শ্রেণির শিক্ষার্থী সোহেল রানা (১৭) এর মাথাবিহীন লাশ ১৯ আগস্ট সোমবার দুপুরে উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। জা- বকশি তালুকদার বাড়ীর জমির হোসেনের ছেলে সোহেল রানা নন্দীখোলা ফাজিল মাদ্রাসায় পড়তো।

নিহত সোহেল রানার মা সামছুন নাহার জানান, আমার ছেলে রাতের খাবার খেয়ে পাশের হাজী বাড়ীর খৎনা অনুষ্ঠানে যাবে বলে ঘর থেকে বেরিয়ে যায়। সেখানে তার বড় ভাইও খৎনা অনুষ্ঠানের গান বাজনা শুনে রাত ২টার সময় ঘরে আসে। সোহেল রানা তখন ঘরে ফিরে না। তার ভাই বলে, এসে পড়বে বলে সবাই ঘুমিয়ে পড়ি। পড়ে সকালেও ঘরে না ফিরলে আমি আশ-পাশে খোঁজ খবর নেই।

সোহেলর বাবা জমির হোসেন জানান, অনেক খোঁজাখুজি করে না পেয়ে ঐ দিন বেলা ১২টার দিকে আমি ও আমার শ্যালক আবুল কালামসহ তার পরিত্যক্ত নতুন বাড়ীতে খোঁজ করতে যাই। সেখানে ঘরে তাকে না পেয়ে পার্শ্ববর্তী পুকুর পাড়ের দিকে দৃষ্টি দিলে পোষাক পরিহিত দেহ পড়ে আছে। ওখানে গিয়ে দেখতে পাই যে আমার সোহেলের মস্তকবিহীন নিথর দেহটাই শুধু পড়ে আছে। আমার ডাক চিৎকারে আশ-পাশের লোকজন জড়ো হয়।

বিষয়টি পুলিশকে অবহিত করা হয়। পরে থানা পুলিশ সোহেলের লাশ উদ্ধার করে চাঁদপুর মর্গে প্রেরণ করে। ঘটনাস্থলে মতলব দক্ষিণ পুলিশসহ চাঁদপুর থেকে ডিএসবি, পিবিআই তদন্ত কাজে অংশ নেয়।

পিবিআই পুলিশ পরিদর্শক মোঃ মাহবুব বলেন, সোহেলের দেহের বাম দিকে ডেগার মারার দাগ রয়েছে। দেহ থেকে মস্তক আলাদা। মস্তক পাওয়া যায়নি। শরীরের নিচের অংশে বস্ত্রাদি ছিল না।

মতলব দক্ষিণ থানার অফিসার ইনচার্জ স্বপন কুমার আইচ বলেন, তার বাবার ধারণা সোহেলের মামা আবুল কালাম সোহেলকে নতুন এন্ড্রয়েড মোবাইল দিয়েছে। ওটার জন্য হয়তো তাকে মেরে ফেলা হয়েছে। এছাড়াও অনেক বিষয় আছে সেগুলো নিয়ে কাজ করছি।

Recommended For You

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *