মানুষের অধিকার রক্ষার জন্য শেখ হাসিনার সরকার কাজ করছে : শিক্ষামন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিনিধি ॥

শিক্ষামন্ত্রী ডা: দীপু মনি এমপি বলেছেন, এখন আর প্রশ্ন ফাঁসের কোনো সুযোগ নেই, তবে যারা প্রশ্ন ফাঁসের চেষ্টা করে বা গুজব ছড়ায় তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। সদ্য শেষ হওয়া এসএসসি পরীক্ষার নিয়ে আমরা এরই মধ্যে একটি পর্যালোচনা সভা করেছি। সভায় এসএসসি পরীক্ষার কোথায় কোনো ত্রুটি-বিচ্যুতি হয়েছে কী না এবং কিভাবে তা আমরা মোকাবিলা করেছি সে বিষয়গুলো আলোচনা হয়েছে। যেন আমাদের আসন্ন এইচএসসি পরীক্ষায় সারাদেশে সঠিকভাবে আমরা পরীক্ষা সম্পন্ন করতে পারি। এক্ষেত্রে যদি কোনো ভুল থাকে তাও সুধরে নেওয়ার চেষ্টা করা হবে। পরীক্ষার যেসব নিয়মকানুন রয়েছে তার কোথাও যেন কোনো ব্যত্যয় না ঘটে। এক্ষেত্রে যদি কোনো শিক্ষকের কোথাও কোনো সম্পৃক্ততা থাকে তাহলে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এজন্য আমি সকলের সর্বাত্মক সহযোগিতা চাই। বিশেষ করে গণমাধ্যম আপনারা কোন ভুল-ত্রুটি দেখলে তুলে ধরবেন। তাহলে কোথাও কোথাও যদি ভুল ত্রুটি থাকে সেটা আমরা সোধরানোর সুযোগ পাবো। মনে রাখতে হবে এসব পাবলিক পরীক্ষা গুলো নতুন প্রজন্মের জন্য একটা বড় স্তর, বড় জায়গা। সেখানে যেন কেউ বাধা ব্যত্যয় সৃষ্টি না করতে পারে। সেদিকে লক্ষ্য রাখার দায়িত্ব সকলের।

চাঁদপুর শহরের বাবুরহাট এলাকায় সর্বজনীন পূজা উদযাপন পরিষদ আয়োজিত স্বগীয় কুলদা প্রসাদ দে বাড়ীতে শারদীয় দূর্গোৎসব উপলক্ষে পূজা মণ্ডপ পরিদর্শন শেষে বক্তব্যে ৪ আক্টোবর দুপুরে তিনি এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী আরো বলেন,আমাদের এদেশ গণতান্ত্রিক একটি বাংলাদেশ। এবং অসাম্প্রদায়িক একটি চেতনা এখানে আমরা বিশ্বাস করি । সকল ধর্মের মানুষ প্রত্যেকেই তার নিজ নিজ ধর্ম স্বাধীন ভাবে পালন করবে। চর্চা করবে, প্রচার করবে। ধর্মের উপর ভিত্তি করে কেউ কারও উপর জোর জবরদস্তি না করে । কারো উপর অত্যাচার জুলুম নির্যাতন করবে না। অধিকার ক্ষুন্ন করা হবে না। তার ধর্মের উপর ভিত্তি করে বা অন্য কোনে বৃত্তি করে। এই বাংলাদেশ এখনো আমরা মাঝে মাঝে দেখি সেই অপশক্তির আস্ফালন যারা একাত্তরে আমাদের স্বাধীনতার বিরোধীতা করেছে পঁচাত্তরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করেছে। ২০০৪ সালে ২১ আগস্ট শেখ হাসিনাকে হত্যা করার চেষ্টা করেছে। এবং ২০১৩-১৪ সালের অগ্নি সন্ত্রাসের কাণ্ড ঘটিয়েছে। সেই অপশক্তিকে আমরা এখনো দেখি তারা বারবার আস্ফালন করে । এমনকি তারা ৭৫’র পাঁচটা হাতিয়ার জেগে উঠবে বলার মতো দূ:সাহস দেখায় । সেই অপশক্তি যারা সাম্প্রদায়িক শক্তি, যারা ধর্মের ভিত্তিতে মানুষ হয়ে মানুষের ভেদাভেদ সৃষ্টি করে। এবং এদেশের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট করতে চায় । আমাদের শান্তি-শৃঙ্খলা বিনষ্ট করে আমাদের প্রগতিকে বন্ধ করে দিতে চায় । আমাদের এগিয়ে যাওয়াকে বন্ধ করে দিতে চায় ।সেই অপশক্তিকে রুখতে হবে। সরকার সব সময় সতর্ক মানুষের অধিকার রক্ষার জন্য শেখ হাসিনার সরকার কাজ করছ। আমাদের সনাতন ধর্মাবলী ভাইদের সবচেয়ে বড় উৎসব শারদীয় দূর্গা উৎসব এটি শান্তিপূর্ণভাবে সবাই পালন করছে। আমরা শান্তিপূর্ণভাবে উৎসবমুখর পরিবেশে এটি পালন করছি।

এসময় উপস্থিত ছিলেন সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আইয়ুব আলী বেপারী, জেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক মাহফুজুর রহমান টুটুল, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) আসিফ মহিউদ্দিন, সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ আবদুর রশিদসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাবৃন্দ।

শেয়ার করুন: