মায়া চৌধুরী প্রেসিডিয়াম সদস্য হওয়ায় ওচমান গনি পাটওয়ারীর অভিনন্দন

কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ নেতা, সাবেক মন্ত্রী ও সংসদ সদস্য জননেতা মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী (মায়া) বীর বিক্রম বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী ফোরাম সভাপতিমন্ডলীর (প্রেসিডিয়াম) সদস্য হিসেবে অন্তর্ভুক্ত হওয়ায় জেলাবাসীর পক্ষে তাঁকে আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন চাঁদপুর জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সহ-সভাপতি আলহাজ্ব ওচমান গনি পাটওয়ারী।

একই সাথে মায়া চৌধুরীকে এই গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব প্রদান করায় দলীয় সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি সশ্রদ্ধ কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন তিনি।

এক বিবৃতিতে আলহাজ্ব ওচমান গনি পাটওয়ারী বলেন, চাঁদপুর জেলাবাসী যে ক’জন সূর্যসন্তানকে নিয়ে আজীবন গর্ব করবে তাঁদের মধ্যে জননেতা মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী (মায়া) বীর বিক্রম অন্যতম। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্নেহধন্য মায়া চৌধুরী বঙ্গবন্ধুর ডাকে সাড়া দিয়ে মহান মুক্তিযুদ্ধে অসামান্য অবদান রাখেন।

তাঁর এই বীরোচিত অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বাধীন সরকার মায়া চৌধুরীকে ‘বীর বিক্রম’ খেতাবে ভূষিত করে। পঁচাত্তর পরবর্তী সময়ে আওয়ামী লীগের দু:সময়ে ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের বলিষ্ঠ ও যোগ্য নেতৃত্ব দিয়েছেন তিনি।

দলের প্রতি তার চরম আনুগত্য ও ত্যাগের স্বীকৃতিস্বরূপ জাতির পিতার সুযোগ্য উত্তরসূরী সফল প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা মায়া চৌধুরীকে একাধিকবার চাঁদপুর-২ আসনে দলীয় মনোনয়ন প্রদান করেন এবং সরকারের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব প্রদান করেন। প্রতিটি ক্ষেত্রে মায়া চৌধুরী তার দেশপ্রেম, জনসেবা, যোগ্যতা ও সফলতার স্বাক্ষর রেখেছেন। সর্বশেষ দেশের প্রাচীণতম প্রধান রাজনৈতিক দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করে জননেত্রী শেখ হাসিনা চাঁদপুরের কৃতি সন্তান মায়া চৌধুরীর প্রতি তাঁর অপরিসীম স্নেহ, ভালোবাসা ও আস্থার জানান দিয়েছেন।

বৃহত্তর মতলব তথা চাঁদপুর জেলার উন্নয়নের অন্যতম স্বপ্নদ্রষ্টা মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী (মায়া) বীর বিক্রমের এই গুরুদায়িত্ব প্রাপ্তিতে গোটা জেলার মানুষ আজ গর্বিত, আনন্দিত। এ জন্য জেলাবাসী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞ।

Recommended For You

Leave a Reply

Your email address will not be published.