মুক্তিযোদ্ধা দেলোয়ার হোসেন রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় সমাহিত

আনোয়ারুল হক:

চাঁদপুরের সর্বজন শ্রদ্ধেয় মু্ক্তিযোদ্ধা,মুক্তিফৌজ ফাউন্ডেশনের সভাপতি বিশিষ্ট লেখক ও লোক গবেষক প্রকৌশলী মো. দেলোয়ার হোসেন আর বেঁচে নেই।

১৬ জুন মঙ্গলবার দিনগত রাতে তিনি শহরের মাদ্রাসারোড নিজ বাসায় হৃদক্রিয়া বন্ধ হয়ে ইন্তেকাল করেন (ইন্নালিল্লাহি…রাজিউন)। তবে তিনি রাতে ঘুমানোর আগ পর্যন্ত কোন ধরণের অসুস্থ্যতা ছিলেন না বলে পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে।

মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিলো ৭০ বছর।মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, দুই ছেলে, এক কন্যাসহ অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে যান। তিনি জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের সাবেক নির্বাহী প্রকৌশলী ছিলেন। মুক্তিযুদ্ধের সময় সম্মূখসারির যোদ্ধা হিসেবে তাঁর সুখ্যাতি আছে। তিনি চাঁদপুরে মুক্তিফৌজ ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠা করেন। তিনি চাঁদপুর ডায়াবেটিক হাসপাতালের আজীবন সদস্য ছিলেন।

এ ছাড়াও লেখক, গবেষক এবং একজন গুণী সংগঠক হিসেবে প্রকৌশলী দেলোয়ার হোসেনের বেশ পরিচিতি ছিল। বিশ্বের কয়েকটি দেশ ভ্রমণ করেন প্রকৌশলী দেলোয়ার হোসেন। চাঁদপুরের ইতিহাস, ঐতিহ্য, মুক্তিযুদ্ধ, জনস্বাস্থ্য এবং ভ্রমণ কাহিনী নিয়ে তার অসংখ্য লেখা রয়েছে।

চাঁদপুরের সকলের পরিচিত মুখ প্রকৌশলী দেলোয়ার হোসেন এর মৃত্যুতে সর্বমহলে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

চাঁদপুরের মরহুমের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ এবং সমবেদনা জ্ঞাপন করেছেন জেলা প্রশাসক মো:মাজেদুর রহমান খানসহসুধীমহল ।

মরহুমের বড় ছেলে সজিব জানান, তার পিতা রাতে খাবার খেয়েছেন। প্রতিদিনের মত ঘুমিয়ে পড়েন। সকালে তার কক্ষে অন্ধকার দেখে ওই কক্ষে প্রবেশ করেন। পিতার নিস্তব্দতা স্থানীয় চিকিৎসক ডেকে এনে নিশ্চিত হন তিনি মারা গেছেন।

মঙ্গলবার বিকালে চাঁদপুর শহরের বাসস্টেশন এলাকায় তার প্রথম নামাজে জানাযার পর হাজীগঞ্জের উপজেলার সদর ইউনিয়নের অলিপুর গ্রামে জানাযা শেষে তাকে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় পারিবারিক কবরস্থানে তাঁকে দাফন করা হয়। এর আগে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি)’র উপস্থিতিতে পুলিশের একটি চৌকস দল তাঁকে গার্ড অব অনার প্রদান করেন।

গার্ড অব অনারের নেতৃত্ব দেন, হাজীগঞ্জ থানা পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মুহাম্মদ আবদুর রশিদ। এরপর মরহুম মুক্তিযোদ্ধা ও প্রকৌশলী দেলোয়ার হোসেনের জানাযা অনুষ্ঠিত হয়। সামাজির দুরত্ম বজায় রেখে অনুষ্ঠিত জানাযা’য় সরকারি কর্মকর্তা, মুক্তিযোদ্ধা, বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ, সাংবাদিক, সুধিসহ মরহুমের আত্মীয়-স্বজন ও এলাকাবাসী উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার করুন: