মেয়েকে দেখতে গিয়ে লাশ হলেন মা

নিজস্ব প্রতিবেদক॥

মাদ্রাসায় পড়ুৃযা মেয়েকে দেখতে এসে লাশ হলেন হাজীগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত মা। তিনি হাজীগঞ্জ উপজেলার ৭নং বড়কুল পশ্চিম ইউনিয়নের নাটেহরা গ্রামের গাজী বাড়ির প্রবাসী মো. শাহআলমের স্ত্রী। মমতাজ বেগম নামের এই নারী ৪ সন্তানের জননী। মঙ্গলবার বিকেলে তাকে জানাজা শেষে পারিবারিক গোরস্থানে দাফন করা হয় ।

এর আগে গত সোমবার রাতে হাজীগঞ্জের ধেররা এলাকায় চাঁদপুর কুমিল্লা আঞ্চলিক মহাসড়কে বেপরোয়া গতির সিএনজি চালিত অটোরিক্সার চাপায় মারা যান তিনি। এর পর থেকে পুলিশ নিহত নারীর পরিচয় নিশ্চিত হতে বিভিন্নস্থানে চেষ্টা চালায়।

স্থানীয়দের সূত্রে জানা যায়, বড়কুল পশ্চিম ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি লোটাস দেলোয়ার হোসেন জানান, মমতাজ বেগম মানসিকভাবে কিছুটা বিপর্যন্ত ছিলেন। তার ছোট মেয়ে পৌরসভাধীন ধেররা এলাকার একটি আবাসিক মাদ্রাসায় পড়ালেখা করে। সোমবার বিকেলে তিনি মেয়েকে দেখতে এসে ফিরতে রাত হয়ে যায়। মাদ্রাসা থেকে বেরিয়ে চাঁদপুর-কুমিল্লা আঞ্চলিক মহাসড়কে উঠতেই সিএনজি চালিত অটোরিক্সা দ্রুত গতির ধাক্কায় গুরুতর আহত হন।

তিনি আরো জানান, ঘাতক সিএনজিচালিত অটোরিক্সা চালককে ও মালিক চিহিৃত হয়েছে। গাড়ির মালিক গরিব ও অসহায় মানুষ। তাই নিহতের পরিবার ও গাড়ির মালিক পরে প্রাথমিকভাবে সমঝোতা হয়। যার ফলে নিহতের পরিবার থানায় অভিযোগ করেনি।

এ বিষয়ে হাজীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ হারুনুর রশিদ জানান, নিহতের পরিবারের লিখিত আবেদনের ভিত্তিতে এবং তাদের কোন অভিযোগ না থাকায় ময়নাতদন্ত ছাড়া মরদেহ হস্তান্তর করা হয়।

Recommended For You

Leave a Reply

Your email address will not be published.