শাহরাস্তিতে গণধর্ষণ ও পর্নোগ্রাফী মামলায় আটক ২

নিজস্ব প্রতিবেদক:

শাহরাস্তিতে গণধর্ষন ও পনোর্গাফী মামলায় ২ আসামীকে আটক করা হয়েছে। ১১ এপ্রিল সোমাবার চাঁদপুর পুলিশ সুপার কার্যালয়ে সংবাদ সন্মেলনে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়।

এ বিষয়ে পুলিশ সুপার মোঃ মিলন মাহমুদ পিপিএম জানায়, কুমিল্লা জেলার মনোহরগঞ্জ থানার বাংলাইশ গ্রামের মৃত ইউনুছ মিয়ার মেয়ে লামিয়া আক্তারের সাথে চাঁদপুর জেলার শাহরাস্তি থানার রঘুরামপুর গ্রামের মোঃ আঃ মতিনের ছেলে মেহেদি হাসানের সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এক পর্যায়ে আসামী ভিকটিমকে বিয়ের প্রলোভনে দেখিয়ে শাহরাস্তি থানার যাদবপুর আসতে বলে। ভিকটিম লামিয়া আসামীর কথায় সরল বিশ্বাসে গত ২৮ মার্চ সন্ধ্যা প্রায় সাড়ে ০৭ টায় শাহরাস্তি আসামীর কথামতো ঐ স্থানে আসলে আসামীর বাড়ির পূর্ব পার্শ্বে বিলের ভিতরে জনৈক গাজীউল এর খালি জায়গায় নিয়ে যায়। সেখানেভিকটিম লামিয়াকে তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোরপূর্বক পালাক্রমে মেহেদি হাসান ও যাদবপুর গ্রামের মৃত আবুল কাশেম ছেলে
আবু সালেহ ধর্ষণ করে।

এ সময় আসামী আবু সালেহ তার মােবাইল দিয়ে ধর্ষণের নগ্ন ছবি ধারণ করে ও পরবর্তীতে ভিকটিমের মায়ের কাছে টাকা দাবী করে। দাবিকৃত টাকা না দেওয়া হলে উক্ত নগ্ন ছবি সামাজিক যােগাযােগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেয়া হবে বলে জানানো হয়।

এ বিষয়ে ভিকটিম গত ১০ এপ্রিল শাহরাস্তি থানায় এজাহার দায়ের করলে তদন্তকারী কর্মকর্তা ও সঙ্গীয় ফোর্সের সহায়তায় বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে গত ১০ এপ্রিল রাতে মূল আসামী মােঃ মেহেদী হাসান (২৪) ও সহযোগী আবু সালেহ (২৩) আটক করা হয়। এ বিষয়ে এজাহার নামীয় পলাতক আসামী দ্বীন ইসলাম (২০) কে গ্রেফতার অভিযান অব্যাহত আছে বলে জানানো হয়।

এ সময় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুদীপ্ত রায়সহ তদন্তকারী কর্মকর্তা আসাদুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

Recommended For You

Leave a Reply

Your email address will not be published.