শিক্ষার্থীদের আরো পরিশ্রমী হতে হবে : অধ্যক্ষ প্রফেসর অসিত বরণ দাশ

ঐতিহ্যবাহী বিদ্যাপীঠ চাঁদপুর সরকারি কলেজের কনফারেন্স কক্ষে ১৩ ডিসেম্বর মঙ্গলবার বেলা ১১টায় পাঠপরিকল্পনা কমিটির উদ্যোগে বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি (এপিএ)-এর আওতায় একাদশ শ্রেণির ফলাফল প্রকাশ এবং অভিভাবক সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

কলেজ অধ্যক্ষ প্রফেসর অসিত বরণ দাশের সভাপ্রধানে এবং রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মেহেদী হাসানের সঞ্চালনায় অভিভাবকবৃন্দ শিক্ষার্থীদের পাঠোন্নয়নে মতবিনিময় করেন। অধ্যক্ষ প্রফেসর অসিত বরণ দাশ অভিভাবকদের মাঝে একাদশ শ্রেণির ফলাফল প্রকাশ করেন। এতে প্রায় দুইশ’ অভিভাবক উপস্থিত ছিলেন। অভিভাবকদের মাঝে ফলাফল প্রকাশের সময় অধ্যক্ষ প্রফেসর অসিত বরণ দাশ বলেন, প্রকাশিত ফলাফল খুব একটা আশাব্যঞ্জক নয়। শিক্ষার্থীদের আরো পরিশ্রমী হতে হবে। আমরা শুধু পাসে বিশ্বাসী নই, আমরা চাই আমাদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে উচ্চ মাধ্যমিক সম্পন্ন করার পর শিক্ষার্থীরা যেন মেডিকেল, ইঞ্জিনিয়ারিং কিংবা পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে চান্স পায়। তাদেরকে উচ্চ মাধ্যমিকে সেভাবে গড়ে তোলার চেষ্টা আমরা করছি। অভিভাবক হিসেবে আপনাদের সহযোগিতা, সমর্থন চাই। এই শিক্ষার্থীরাই আগামী দিনের ভবিষ্যৎ। এদের মধ্য থেকেই বেরিয়ে আসবে আগামী দিনের বিজ্ঞানী, ডাক্তার, প্রকৌশলী, কৃষিবিদ, কর্মকর্তা, সাংবাদিক। শিক্ষার্থীদের ভাল রেজাল্ট আমাদের আনন্দ দেয়। শিক্ষার্থীদের ভালো ফলাফলের জন্যে শিক্ষার্থী, শিক্ষক এবং অভিভাবক সকলে সম্মিলিত চেষ্টা প্রয়োজন।

অভিভাবক সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন কলেজ উপাধ্যক্ষ প্রফেসর মোঃ আবুল খায়ের সরকার, ইংরেজি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ও সহযোগী অধ্যাপক মোঃ আলী আজগর ফকির, প্রাণিবিদ্যা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মোঃ সেলিম হোসেন, ব্যবস্থাপনা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক কিউ এম হাসান শাহরিয়ার, শিক্ষক পরিষদ সম্পাদক ও উদ্ভিদবিদ্যা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মোহাম্মদ কামরুল হাছান ও রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মেহেদী হাসান।

শিক্ষার্থীদের ভালো ফলাফলে উৎসাহ দেয়ার জন্য বিজ্ঞান শাখায় এ প্লাস পাওয়া ১০ জন, মানবিক শাখার প্রথম ৫ জন এবং ব্যবসায় শিক্ষা শাখার প্রথম ৫ জনসহ মোট ২০ জন শিক্ষার্থীকে পুরস্কৃত করা হয়। বিভিন্ন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান এবং কাউন্সিলর শিক্ষকবৃন্দ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার করুন: