শিক্ষা জীবন হলো জীবন গঠনে বিনিয়োগের শ্রেষ্ঠ সময় : জেলা প্রশাসক

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥

নারায়ণপুর ডিগ্রি কলেজের উদ্যোগে কলেজের ছাত্র-ছাত্রীদের ক্লাসে শতভাগ উপস্থিতি, মানসম্মত শিক্ষা নিশ্চিতকরণ বাল্যবিবাহ, ইভটিজিং, মাদক কিশোর গ্যাং প্রতিরোধে সচেতনতা মূলক অভিভাবক সমাবেশ এবং বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতার পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠান ৮ সেপ্টেম্বর সকাল ১১ টায়, কলেজ মাঠে অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন চাঁদপুর জেলা প্রশাসক কামরুল হাসান। কলেজ গভর্নিং বডির সভাপতি মো. সাইফুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের সহকারি অধ্যাপক মুক্তার আহাম্মদ।

জেলা প্রশাসক তাঁর বক্তব্যে বলেন, শিক্ষার্থীদের জন্য শিক্ষা জীবন হলো জীবন গঠনে বিনিয়োগের শ্রেষ্ঠ সময়। লেখাপড়া করে নিজেকে গঠন করার শ্রেষ্ঠ সময়। প্রকৃত অর্থে নিজের জন্য কিছু করে মানুষ হওয়াই একজন শিক্ষার্থীর ব্রত হওয়া উচিত। তাহলেই জীবনে সফলতা আসবে। আমার প্রত্যাশা প্রতিটি পরীক্ষায় এই কলেজ ভালো ফলাফল করবে।

তিনি অভিভাবকদের উদ্দেশ্যে বলেন, শুধু অভিভাবক সমাবেশে উপস্থিত হলেই দায়িত্ব শেষ হয়ে যায় না, মাঝে মধ্যে কলেজে এসে সন্তানের খোঁজ খবর নিতে হবে। সন্তানকে বেশি বেশি সময় দিতে হবে। সন্তানকে সম্পদে পরিণত করতে অভিভাবক সচেতন হওয়ার আহ্বান জানান।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন চাঁদপুর জেলা পুলিশ সুপার মো. মিলন মাহমুদ, বিপিএম-বার । তিনি তাঁর বক্তব্যে বলেন, শিক্ষার্থীদের মোবাইল ফোন ইতিবাচক দৃষ্টি ভঙ্গিতে চালাতে হবে। মোবাইল ফোন শিক্ষা মূলক কাজে ব্যবহার করতে হবে। নিজেকে যোগ্য করে তুলতে মাদক, ইভটিজিং থেকে দুরে থাকতে হবে। তিনি বলেন, শিক্ষার্থীদের দল হবে সমাজের ইতিবাচক কাজের জন্য। শিক্ষার্থীদের দল যেন কিশোর গ্যাং এ পরিণত না হয় সেদিকে আমাদের সকলের খেয়াল রাখতে হবে। তিনি পিতা-মাতা হিসেবে সন্তানের খোঁজ খবর রাখার প্রতি প্রত্যেক অভিভাবকদের প্রতি আহ্বান জানান। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন নারায়ণপুর ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ মোহাম্মদ রুহুল আমিন।

সভাপতির বক্তব্যে মো. সাইফুল ইসলাম কলেজের শিক্ষার পরিবেশ ও চলমান উন্নয়ন কর্মকান্ডের চিত্র তুলে ধরেন এবং প্রয়োজনীয় চাহিদা পুরণে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন। সম্মানিত অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা চেয়ারম্যান বিএইচএম কবির আহমেদ, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফাহমিদা হক, সড়ক ও জনপদ চাঁদপুর এর নির্বাহী প্রকৌশলী মো. সামজ্জোহা, শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর চাঁদপুর এর নির্বাহী প্রকৌশলী ফাহিম ইকবাল, মতলব দক্ষিণ এএসপি সার্কেল মো. ইয়াসির আরাফাত, বক্তব্য রাখেন, জিবির সাবেক সদস্য মে. বজলুর রশিদ মজুমদার, কলেজের দাতা সদস্য মো. আব্দুল মবিন প্রধান, জিবির সদস্য মো. রাসেল প্রধান, মো. জাহাঙ্গীর আলম খন্দকার, কলেজের যুক্তিবিদ্যা বিভাগের সহকারি অধ্যাপক ড. আফম সাইফুর রহমান ভুঁইয়া, ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের সহকারি অধ্যাপক মো. সাইফুল ইসলাম, নারায়ণপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. জহিরুল মোস্তফা তালুকদার, নারায়ণপুর পপুলার বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শিরিন আক্তার, একাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী তন্বী আক্তার, জিপিএ -৫ প্রাপ্ত শিক্ষার্থী ইসরাত জাহান, পরে অতিথিগণকে ক্রেস্ট দিয়ে সম্মানিত করা হয় এবং জিপিএ-৫ প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা ও ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরষ্কার বিতরণ করা হয়।

এ সময় উপস্থিতি ছিলেন, মতলব দক্ষিণ উপজেলা সহকারী কমিশনার( ভূমি) সেটু কুমার বড়ুয়া, ডা. নুসরাত জাহান মিথেন, মতলব দক্ষিণ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ মহিউদ্দিন মিয়া, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. আব্দুর রহিম খান, জিবির সদস্যবৃন্দ, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধান, অভিভাবক, কলেজের শিক্ষক শিক্ষার্থী, ও ছাত্র-ছাত্রীবৃন্দ।

শেয়ার করুন: