সরকারের এই মেয়াদে প্রতিশ্রুত কাজ দ্রুত শেষ করার তাগিদ: শিক্ষামন্ত্রী

আনোয়ারুল হক ॥

শিক্ষামন্ত্রী ডা: দীপু মনি এমপি বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশটাকে যেভাবে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন, সেভাবে আপনাদের কাজ করতে হবে। গৃহীত প্রকল্পগুলো দ্রুত শেষ করা জন্য সহযোগিতা করতে হবে। সরকারের এই মেয়াদে প্রতিশ্রুত কাজ দ্রুত শেষ করতে হবে। কোথাও কোন সমস্যা থাকলে তা আমাকে জানাতে হবে। আমি চেস্টা করবো সেগুলো সমাধান করতে ।এ জন্য আপনাদের আন্তরিক সহায়তা চাই। চাঁদপুর জেলায় বাস্তবায়িত ও বাস্তবায়নাধীন প্রকল্প এবং বিভিন্ন বিভাগের সার্বিক কার্যক্রম সম্পর্কে জেলা পর্যায়ের কর্মকর্তাদের সাথে পর্যালোচনা সভায় গতকাল মঙ্গলবার বেলা ১১টায় এসব কথা বলেন। সভাটি প্রায় ৪ঘন্টা ব্যাপি চাঁদপুর সার্কিট হাউসে অনুষ্ঠিত হয়।

ডা:দীপু মনি সড়ক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলীকে বলেন, চাঁদপুর থেকে হাইমচর পর্যন্ত ঘেনার তীরে রিভার ভিউর আদলে প্রশস্ত একটি রাস্তা নির্মাণের জন্যে দ্রুত ডিপিপি তৈরি করুন। সড়ক মন্ত্রীর সাথে যোগাযোগ করে দ্রুত এটি বাস্তবায়নের চেস্টা করবো।

পাউবো’র নির্বাহী প্রকৌশলী বলেন,চাঁদপুর শহর রক্ষায় আকস্মিক ভাঙ্গন ঠেকাতে ১০হাজার বালি ভর্তি জিও ব্যাগ এবং ২৩ হাজার ব্লক প্রস্তুত আছে। এছাড়া শহর রক্ষায় স্থায়ী বাঁধ নির্মাণের জন্য ১০ হাজার ৩৮ কোটি টাকার একটি ডিপিপি তৈরী করে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।

জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ সভাপ্রধানের দায়িত্ব পালন করেন। উক্ত সভায় জেলা প্রায় ৭০ দপ্তরের কর্মকর্তাগণ অংশগ্রহণ করেন। এসভায় বর্তমান সরকারের ২০১৯ হতে বর্তমান সময় পর্যন্ত চাঁদপুর জেলার বিভিন্ন বিভাগের সার্বিক কার্যক্রম সম্পর্কে কর্মকর্তাগণ মন্ত্রীকে অবহিত করেন।

সভায় গুরুত্বের সাথে আলোচনা হয় চাঁদপুর মেডিক্যাল কলেজ, জেলার ৯টি মডেল মসজিদ নির্মাণ ,হাইমচরে ৩ লঞ্চ ঘাট নির্মাণ, চাঁদপুর আধুনিক নৌ টালমিনাল নির্মাণ,হাইমচরে নির্মিত ফায়ার সার্ভিসটি ৩য় শ্রেণি থেকে ২য় শ্রেণিতে উন্নীত করণ, ফরিদগঞ্জে নবনির্মিত ফায়ার সার্ভিস ষ্টেশনটি রাজস্ব খাতভুক্তকরণ , পরিবার পরিকল্পনা বিভাগে ১৩জন চিকিৎসক আনা ইত্যাদি।
সভায় পিডিবির নির্বাহী প্রকৌশলী জানান, চাহিদা অনুযায়ী আমরা চাঁদপুর শহরের জন্য ২৩ মেঘাওয়াট বিদ্যুৎ পাচ্ছি । তবে গ্রিড এবং সাব-ষ্টেশনে ট্রিপ করা এবং সঞ্চালন লাইনের ত্রুটি সারাতে মাঝে মাঝে বিদ্যুৎ সঞ্চালন বন্ধ করতে হয়। এছাড়া অন্য কোন সমস্যা নাই । পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এবং -২য়ের ব্যবস্থাপক জানান, তাদেরও বিদ্যুৎয়ের ঘাটতি নাই।

শিক্ষামন্ত্রী আরো বলেন, বাংলাদেশ অপ্রতিরোধ্য গতিতে এগিয়ে চলছে দেশের এমন কোন সেক্টর নাই যেখানে প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি। আমার নির্বাচনী এলাকা চাঁদপুর ও হাইমচর বাসির কল্যাণে যে সকল উন্নয়ন প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে সেগুলোর সঠিক বাস্তবায়ন ও অগ্রগতি দ্রুত শেষ করতে হবে। চাঁদপুরের কোথাও লোডশেডিং হবার কথা নয় তারপরও এখন নামাজের সময় ইফতারের সময় সেহরির সময় এরকম সময়গুলোতে কোন বিদ্যুৎ যেতে পারবেনা দুর্ঘটনা কারণবশত এই সময়গুলোতে বিদ্যুৎ সময় দেখা দিলে সাথে সাথে মেরামত করতে হবে বিদ্যুতের সাথে সরকারের সুনাম সরাসরি জড়িত মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর এত বড় সাফল্য সেটা থানা পর্যায়ে কারো ব্যক্তির জন্য নষ্ট হতে পারে না তাই খুব কেয়ারফুল থাকতে হবে।আগামী জাতীয় নির্বাচনের আগে উন্নয়ন কাজগুলো দৃশ্যমান করার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সহযোগিতা কামনা করেন।

এরপর শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনি এমপি বিভিন্ন দপ্তরের উন্নয়ন কাজের বাস্তবায়ন ও অগ্রগতির বিষয়ে সংশ্লিষ্ট দপ্তরের বা বিভাগের কর্মকর্তাদের বক্তব্য মনোযোগ সহকারে শোনেন এবং যেখানে মন্ত্রীর তদারকি প্রয়োজন সেই বিষয়গুলো নিজে নোট নেন।

এ সময় সভায় উপস্থিত ছিলেন চাঁদপুর জেলা পুলিশ সুপার মোঃ মিলন মাহমুদ বিপিএম বার, পুলিশ সুপার নৌ অঞ্চল চাঁদপুর মোঃ কামরুজ্জামান, জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মিজানুর রহমান,চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র জিল্লুর রহমান জুয়েল , চাঁদপুর প্রেসক্লাব সভাপতি গিয়াসউদ্দিন মিলন, চাঁদপুর সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম নাজিম দেওয়ান, হাইমচর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নূর হোসেন পাটোয়ারী,সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সানজিদা শাহনাজ, পিপি অ্যাড: রণজিৎ রায় চৌধুরী।
বক্তব্য রাখেন, সিভিল সার্জন ডাঃ মোহাম্মদ সাহাদাৎ হোসেন, আর ঐশ্বর্য চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডাক্তার এ কে এম মাহবুবুর রহমান চাঁদপুর সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ অসিত বরণ দাস, গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মোহাম্মদ রকিবুর রহমান, চাঁদপুর সড়ক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী সামসুজ্জোহা, শিক্ষা প্রকৌশল বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী ফাহিম ইকবাল, পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের উপ-পরিচালক ডাঃ ইলিয়াস হোসেন, কৃষি কর্মকর্তা জালাল উদ্দিন, এলজিইজির নির্বাহী প্রকৌশলী ইউনুস বিশ্বাস, পরিসংখ্যান বিভাগের উপ-পরিচালক নাইমা রহমান স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর নির্বাহী প্রকৌশলী মো জাহিদ উল আলম, ফায়ার সার্ভিসের সহকারী পরিচালক সহিদুল ইসলাম, চাঁদপুর নদী বন্দর ও বিআইডব্লিউটিএ উপপরিচালক কায়সারুল ইসলাম, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপ-পরিচালক মোহাম্মদ খলিলুর রহমান জেলা মৎস্য কর্মকর্তা গোলাম মেহেদী হাসান, জেলা সরকারি গণগ্রন্থাগার লাইব্রেরিয়ান রাফিয়া সুলতানা, সদর উপজেলা বন কর্মকর্তা বিল্লাল হোসেন, কৃষি বিপণন বিভাগের মার্কেটিং অফিসার কামরুজ্জামান প্রমুখ।

Recommended For You

Leave a Reply

Your email address will not be published.