সরকার উৎখাতের ষড়যন্ত্র চলছে : মায়া

সরকার উৎখাতের ষড়যন্ত্র চলছে : মায়া

চাঁদপুর প্রতিনিধি:
বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যা হুমকির প্রতিবাদে চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার ষাটনল ইউনিয়নে এক কর্মী সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার বিকালে উপজেলার শরীফ উল্লাহ উচ্চ বিদ্যালয়ের খেলার মাঠে আয়োজিত সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তৃতা দেন সাবেক দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া।

এ সময় মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বলেন, সরকার উৎখাতের ষড়যন্ত্র চলতেছে। তারা শেখ হাসিনাকে হত্যার হুমকি দিয়েছে। তারা স্লোগান দেয় ৭৫, এর হাতিয়ার গর্জি উটো আরেকবার। সেই ৭৫ এর দলটা কার? দলটা জিয়ার। দলটা বিএনপি। এই আশা কখনো পূরণ হবে না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হুমকির প্রতিবাদে সারা বাংলাদেশে প্রতিবাদের জড় উঠে যাচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, আওয়ামী লীগ টানা সাড়ে ১৩ বছর ক্ষমতায় থেকে দেশের উন্নয়ন করছে,মানুষের সেবা করছে। আমরা কিছুটা রিল্যাক্স মুডে ছিলাম। এরমধ্যেই বিএনপি জামায়াত হত্যার হুমকি দেয়। আপনাদেরকে বলে দিতে চাই, নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করুন। নির্বাচনে অংশ গ্রহণ না করে কখনো পিছনের দরজা দিয়ে ক্ষমতায় আসতে পারবেন না। এই চেষ্টা করে কোন লাভ নাই। আপনাদের এই স্বপ্ন কখরো পূরণ হবে না। জনগণ তা মেনে নিবে না।

তিনি মতলবের আওয়ামী লীগকে আরো সুসংগঠিত করে সাজানোর আশ্বাস প্রদান করেন। মতলব উত্তর রক্ষায় কোন নদী থেকে বালু কাটতে দেওয়া হবে না, প্রতিবাদ করা হবে বলে জানান মায়া চৌধুরী।

বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীর বিক্রম বলেছেন, নেতৃত্ব সংকটে ভুগতে থাকা বিএনপির সামনে এখন শুধুই মরীচিকা। কারণ তাঁদের চেয়ারপারসন দ-প্রাপ্ত আসামি, আর ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসনও দুর্নীতির দায়েদ-প্রাপ্ত পলাতক আসামি।

প্রধান অতিথি তার বত্তব্যে আরো বলেন, আওয়ামীলীগ একটি সুশৃংখল রাজনৈতিক দল।আমরা বঙ্গবন্ধু আদর্শে রাজনীতি করি, আমরা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ আছি এবং উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে শেখ হাসিনার নেতৃত্বেই ঐক্যবদ্ধ থাততে চাই।

ষাটনল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি একেএম শরীফ উল্লাহ সরকারের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আবু হানিফ সরকারের উপস্থাপনায় প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাড. রুহুল আমিন।

আরও বক্তব্য রাখেন, আওয়ামী লীগের জাতীয় পরিষদের সাবেক সদস্য রিয়াজ উদ্দিন মানিক, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আইয়ুব আলী গাজী, আওয়ামী লীগ নেতা মিয়া মো. জাহাঙ্গীর আলম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম হাওলাদার, মো. শাহজাহান প্রধান, গাজী ইলিয়াছুর রহমান, জহিরাবাদ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি গাজী মুক্তার হোসেন, ফতেপুর পুর্ব ইউপি চেয়ারম্যান আজমল হোসেন চৌধুরী, ফরাজীকান্দি ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেন দানেশ,ছেঙ্গারচর পৌর আওয়ামী সভাপতি মনির হোসেন, লীগের সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান, উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী পারভীন শরীফ, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের আহ্বায়ক সিরাজুল ইসলাম ডাবলু, তেজগাঁও থানা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক নাছির চৌধুরী, উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক মিনহাজ উদ্দিন খান, যুগ্ম-আহ্বায়ক তামজিদ সরকার রিয়াদ, ইউপি সদস্য হারুন, জেলা জাতীয় পার্টির যুগ্ম-আহ্বায়ক সিদ্দিকুর রহমান মোল্লা,উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক কাজী শরীফ, ষাটনল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতা হারুন সরকার, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি জহির রায়হান, জেলে সুখরঞ্জন, মিজানুর রহমান মোল্লা, রাসেল, এসএ মনজুর হোসেন কাজল, ষাটনল ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক সেলিম খান টিটু প্রমুখ।

শেয়ার করুন: