সরকার ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার জন্য নানামুখী প্রকল্প হাতে নিয়েছে : পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী

মতলব উত্তর ব্যুরো:

চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলায় ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলার উদ্বোধনী ও পুরস্কার বিতরন অনুষ্ঠিত হয়। ৯ নভেম্বর বুধবার দুপুরে উপজেলা সভাকক্ষে ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলার পুরস্কার বিতরন করেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম।

মতলব উত্তর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আশরাফুল হাসানের সভাপতিত্বে এবং উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা আওরাঙ্গজেবের সঞ্চালনায়টেলিকনফারেন্সে সংযুক্ত হয়ে বক্তব্য দেন, চাঁদপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব এ্যাড. নুরুল আমিন রুহুল। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, মতলব উত্তর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা এমএ কুদ্দুস।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা সহকারী কমিশনার(ভূমি) আল-ইমরান খান, এএসপি সার্কেল আবুল কালাম চৌধুরী, মতলব উত্তর থানার অফিসার ইনচার্জ মহিউদ্দিন, উপজেলা সহকারী প্রোগ্রামার শাজাহান প্রমুখ।

পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী তার বক্তব্যে বলেন, শুধু বাংলাদেশ নয়, সারা বিশ্ব বিশ্বাস করে সর্বক্ষেত্রে ডিজিটালাইজেশন হলে সারা পৃথিবী থেকে অন্তত ৮০ ভাগ দুর্নীতি কমে যাবে। জমিসংক্রান্ত কাগজপত্র তুলতে যে ভোগান্তি হয়, ডিজিটালাইজেশন হলে তা আর হবে না। আমরা সেবক, জনগণের সেবা প্রদানের জন্য আমরা কাজ করে যাচ্ছি। আমরা যদি একটি ভালো কাজ করতে পারি তাহলে মানুষের ভালোবাসা নিয়ে বেঁচে থাকতে পারবো।

তিনি বলেন, বিধবা ও বয়স্কসহ সকল ভাতা যে ঘরে বসেই মোবাইলে টাকা পেয়ে যায় এটাই ডিজিটাল বাংলাদেশ। কৃষক আধুনিক চাষাবাদে ডিজিটাল সেবা নিয়ে আসছে। দেশের সকল ইউনিয়ন পরিষদের মাধ্যমেই সাধারন জনগন ডিজিটাল সেবা পেয়ে আসছে। আর এসব কেবল শেখ হাসিনার পক্ষেই সম্ভব হচ্ছে।

পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম আরো বলেন, সরকার ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ে তোলার জন্য নানামুখী প্রকল্প হাতে নিয়েছে। মেলায় প্রযুক্তির বিভিন্ন সংস্করণ প্রদর্শন করা হবে। ডিজিটাল প্রযুক্তি উদ্ভাবন, উপযোগী মানব সম্পদ সৃষ্টি, ডিজিটাল প্রযুক্তির আধুনিক সংস্করণের সাথে জনগণের সেতুবন্ধন তৈরি এবং ডিজিটাল বাংলাদেশ কর্মসূচি বাস্তবায়নে অগ্রগতি তুলে ধরাই ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ মেলা’র অন্যতম প্রধান লক্ষ্য।

পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড.শামসুল আলম বলেন, জ্ঞানভিত্তিক ডিজিটাল সাম্য সমাজ প্রতিষ্ঠায় ডিজিটাল প্রযুক্তি এবং তরুণ জনগোষ্ঠীর মধ্যে সেতুবন্ধন স্থাপনের জন্য কার্যকর কর্মসূচি গ্রহণ অপরিহার্য। ডিজিটাল সংযুক্তি হচ্ছে ডিজিটাল বাংলাদেশ তৈরির অন্যতম ভিত্তি।

শেয়ার করুন: