সাঁকো দিয়ে সেতু পার

মতলব উত্তর প্রতিবেদক॥

মতলব উত্তরের একটি সেতু পার হতে ব্যবহার করা হচ্ছে বাঁশের সাঁকো। কয়েক দিনের টানা বর্ষণে এই সাঁকোও ডুবেছে পানির নিচে। এতে ভোগান্তিতে পড়েছে এলাকার স্থানীয় বাসিন্দারা।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, কয়েক বছর আগে মতলব উত্তরের ছেংগারচর পৌরসভার শিকিরচর গ্রামের সওদাগর পাড়ায় নির্মাণ করা হয়েছিল এই সেতুটি। রাস্তা পারাপারে এই সেতুই ছিল গ্রাম বাসীর ভরসা। কিন্তু নির্মাণের কয়েক মাস পর ভাঙনে মাটি সরে গেছে সেতুর দুই পাশের। এরপর থেকে সংস্কারের উদ্যোগ নেয়নি সংশ্লিষ্ট কেউ। তবে সাময়িক যাতায়াতের জন্য এলাকাবাসীর উদ্যোগে তৈরি করা হয় বাঁশের সাঁকো। কিন্তু টানা বর্ষণে এই সাঁকোও ব্যবহারের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে।

সরেজমিন দেখা গেছে, পানিতে ডুবে গেছে সেতুর আশপাশ। আর বাঁশের সাঁকো দিয়ে এই সেতু পার হচ্ছেন সওদাগর পাড়ার শতাধিক পরিবারের লোকজন।

এলাকার স্থানীয় বাসিন্দা আবদুল মান্নান সওদাগর জানান, কেউ অসুস্থ হয়ে পড়লে এই বাঁশের সাঁকো দিয়ে পার হয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। এতে করে সঠিক সময়ে হাসপাতালে পৌঁছাতে না পেরে রোগীরা আরও অসুস্থ হয়ে পড়েন।

স্থানীয় ব্যবসায়ী সফিকুল ইসলাম বলেন, এই সেতু দিয়ে এক সময় বিভিন্ন পণ্যবাহী গাড়ি যাতায়াত করত। কিন্তু সেতুর সংযোগ সড়ক ভেঙে যাওয়ার পর থেকে গ্রাম থেকে বাজারে ধান, চাল ও কৃষিপণ্য যানবাহনে পরিবহন করা যাচ্ছে না।

আরেক বাসিন্দা রফিক সওদাগর জানান, সওদাগর পাড়ার এই সেতুটি দিয়ে প্রতিনিয়ত ভোগান্তি নিয়ে চলাচল করতে হয় স্থানীয় বাসিন্দাদের।

ছেংগারচর পৌরসভার স্থানীয় কাউন্সিলর আবদুস সালাম খান জানান, সেতুটি পরিদর্শন করা হয়েছে। অল্প সময়ের মধ্যেই ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

উপজেলা প্রকৌশলী সাইফুল ইসলাম এ বিষয়ে বলেন, বিষয়টি আমার জানা ছিল না। অতি দ্রুত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Recommended For You

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *