সাধারণ জনগণের আস্থার প্রতিক এবিএম রেজওয়ান

হাসান আল মামুন:

আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন উপলক্ষে নির্বাচনী মাঠে নেমে দলীয় মনোনয়নের জন্য নীতি নির্ধারক মহলে তদবির শুরু করেছেন সম্ভাব্য প্রার্থীরা। নিজেকে চেনাতে স্ব-স্ব ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায় প্রচার প্রচারনা হিসেবে চলছে গণসংযোগ ও উঠান বৈঠক। তবে কোন কোন ইউনিয়নে জনপ্রিয় ব্যক্তিরাই রয়েছেন মনোনয়ন পাওয়ার বিষয়ে আলোচনার শীর্ষে। এদের মধ্যে এবিএম রেজওয়ান একজন।

তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী হিসেবে চাঁদপুর সদর উপজেলার ৫নং রামপুর ইউনিয়ন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদে নির্বাচনে অংশ নিতে চান। যার পুরো নাম আবুল বারাকাত মোঃ রেজওয়ান। অর্থনীতিতে মাস্টার্স করেছেন চাঁদপুর সরকারী কলেজ থেকে।
তিনি দলীয় নেতা-কর্মী ও সাধারণ জনগণের আস্থার প্রতিক। বর্তমানে ইউনিয়নে সব চেয়ে জনপ্রিয় ব্যাক্তি। ইউনিয়ন জনসাধারণসহ আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, মহিলা আওয়ামী লীগ ও ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠন তাকে চেয়ারম্যান হিসেবে পেতে চাইছেন।

তিনি শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি এমপি’র একান্ত স্নেহধন্য বিশ্বস্ত নেতা। সামাজিকতা, শিক্ষা ও রাজনীতিতে যার পরিচিতির ভান্ডার বেশ সমৃদ্ধ। তিনি ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ড সকদি পাঁচগাও গ্রামের সন্তান। তিনি শাহতলী কামিল মাদ্রাসার সাবেক শিক্ষক, চাঁদপুর সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য মুক্তিযোদ্ধা মোঃ ইসমাইল মাষ্টারের পুত্র। রাজনীতির পাশাপাশি তিনি একজন ব্যবসায়ী। স্কুল জীবন থেকেই ছাত্রলীগের রাজনীতির সাথে জড়িত। তিনি রাজনৈতিক অঙ্গনে বেশ সফল নেতৃত্বের অধিকারী একজন সংগঠক। যখন যে দায়িত্ব পেয়েছেন তা অত্যান্ত সফলতার সাথে চালিয়ে গেছেন। তিনি তার সকল স্তরের পদ পদবী সফলতার সাথে পালন শেষে বর্তমানে চাঁদপুর সদর উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছে।

সৎ, মেধাবী ও পরিচ্ছন্ন নেতৃত্বের কারনে তিনি রাজনীতির বিভিন্ন ধাপ উৎরিয়ে বর্তমানে চাঁদপুর সদর উপজেলা নিজ ইউনিয়নে সার্বিক উন্নয়ন ও জনকল্যাণে কাজ করতে চান। এবিএম রেজওয়ান নিজ ইউনিয়নসহ চাঁদপুর সদরের রাজনীতির গতিপথ ছাত্রলীগের রাজনীতিকে করেছেন শক্তিশালী। যার ফলে চাঁদপুরে শিক্ষামন্ত্রীসহ অন্যান্য নেতারা কাজ করতে বেশ স্বাচ্ছান্দ বোধ করেন। তিনি দীর্ঘদিন যাবত তার সাধ্য অনুসারে বিভিন্ন প্রকার অসহায় লোকজনকে আর্থিক সহযোগিতা করেছেন। বিশ্বব্যাপি করোনা ভাইরাস প্রকোপকালীন সময়ে তিনি ইউনিয়নের প্রতিটি ওয়ার্ডে তার ব্যক্তিগত পক্ষ থেকে অসহায়দের পাশে থেকে আর্থিকসহ বিভিন্ন খাদ্য সামগী বিতরণ করেছেন।

এছাড়া তিনি ইউনিয়নের প্রায় প্রতিটি মসজিদেই মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনি এমপি, শিক্ষামন্ত্রীর স্বামী ব্যারিস্টার তৌফিক নাওয়াজ, জেআর ওয়াদুদ টিপু, এডভোকেট জাহিদুল ইসলাম রোমার, সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম নাজিম দেওয়ান, ভাইস চেয়ারম্যান আইয়ুব আলী বেপারী, পৌর মেয়র এডভোকেট জিল্লুর রহমান জুয়েল, জাফর ইকবাল মুন্না, জহির উদ্দিন মিজিসহ নিজ এলাকার অসুস্থ্যদের সুস্থ্যতা ও দীর্ঘায়ু কামনায় দোয়ার আয়োজন করেছেন।

আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে অংশ নেওয়ার বিষয়ে তিনি জানান, এই ইউনিয়নের বর্তমান ঐতিহ্য বেশ সমৃদ্ধ। এই ইউনিয়নে ভাষাবীর এমএ ওয়াদুদের জম্ম, এই ইউনিয়ন শিক্ষামন্ত্রীর ইউনিয়ন, এই ইউনিয়নে বহু গুরুত্বপূর্ন ও কৃতি সন্তানের জম্ম। তাই সকলের সহযোগিতায় জনগনের মৌলিক সেবার কেন্দ্র ইউনিয়ন পরিষদকে জনগনের পরিষদ হিসেবে গড়তে চাই। যেখানে ইউনিয়নের সকল শ্রেণীর জনগন সমান সেবা পাবে। নিশ্চিত হবে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহীতা। এখানে কোন ব্যক্তি কেন্দ্রীক সেবা হবে না। হবে মিথ্যাচার ও বিভাজনমুক্ত নেতৃত্বের ইউনিয়ন পরিষদ। আমি জনগনকে তাদের প্রাপ্য মৌলিক অধিকার নিশ্চিত করতে চাই। যদি আপনারা আমাকে সুযোগ দেন তাহলে আল্লাহর রহমতে মাদকের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নিয়ে ইউনিয়নের উন্নয়ন, স্বচ্ছ ও হয়রানীমুক্ত মৌলিক জনসেবা প্রদান নিশ্চিত করতে কাজ করবো ইনশাআল্লাহ।

আমি চাই বর্তমান সরকারের ডিজিটাল সেবা ও গ্রামীন উন্নয়ন থেকে এলাকাবাসী যেন বঞ্চিত না হয়। কোন জনগন যাতে ইউনিয়নে অন্যায়ভাবে হয়রানীর শিকার না হয়। রাজনীতিতে কোন বিভেদ না থাকে। যাতে সম্মান না যায় শিক্ষামন্ত্রী সহ বিশিষ্টজনদের। রাজনৈতিক অঙ্গনে এ বিএম রেজওয়ান চাঁদপুর সদর উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি দায়িত্ব পালনের আগেও নিজ ইউনিয়ন ৫নং রামপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক, পুরান বাজার ডিগ্রী কলেজ ছাত্রলীগ শাখা ও চাঁদপুর সরকারী কলেজ জিয়া হল ছাত্রলীগ শাখার সাবেক যুগ্ম আহবায়ক, সদর উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি, চাঁদপুর জেলা ছাত্রলীগের সদস্য হিসেবে অত্যান্ত দক্ষ ও সততার সহিত সামনে থেকে দায়িত্ব পালন করেন। তার নেতৃত্বে রাজনীতির প্রান ছাত্রলীগের রাজনীতি এখন বেশ চাঙ্গা ও সক্রীয়। এ জন্য রাজনৈতিক অঙ্গনে তার বেশ সুপরিচিতি ও গ্রহন যোগ্যতা প্রকাশ পায়। তার সাংগঠনিক দক্ষতায় বেশ মুগ্ধ চাঁদপুর রাজনৈতিক অঙ্গন।

এছাড়াও এবিএম রেজওয়ান শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র চাঁদপুর জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক, আবহানী ক্রীড়া চক্র চাঁদপুর জেলা শাখার সাবেক সদস্য, শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র চাঁদপুর জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক ও নিজ ইউনিয়ন ৫নং রামপুর ইউনিয়নের আলহেরা ওয়াহেদিয়া মহিলা দাখিল মাদ্রাসার সভাপতি,আলগীপাঁচগাও ঐক্য কেতন ক্লাবের সভাপতি হিসেবে অত্যান্ত দক্ষতা ও সততার সাথে দায়িত্ব পালন করে আসছেন। তার মেধা, মনোনশীলতা ও চিন্তাচেতনা নিঃসন্দেহে একজন দক্ষ নেতার বৈশিষ্ট বহন করে বলা যায়।

এবছর তার ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায় বিভিন্ন অনুষ্ঠানে গিয়ে বুঝা গেলো তিনি আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন পাওয়ার অন্যতম দাবীদার। তার সামাজিক রাজনৈতিক অবস্থান ইউনিয়ন পরিষদকে যেভাবে সেবার আশ্রয় কেন্দ্র হিসেবে দেখতে চান তা খুবই আশাব্যাঞ্জক। তিনি চান, ভাষাবীর ও শিক্ষামন্ত্রীসহ বিশিষ্টজনদের ইউনিয়নকে স্বচ্ছ ও জনসাধারণের ইউনিয়ন হিসেবে রুপান্তর করতে। যেখানে অব্যাহত থাকবে স্বচ্ছ পরিচালনা ও ন্যায় প্রতিষ্ঠা।

থাকবে না কোন দ্বি-মত ও দ্বন্দ্ব। তিনি সকলের দোয়া ও সহযোগিতা কামনা করেছেন।

Recommended For You

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *