সুলতানাবাদ ইউপির স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী খোকনের পথসভা

মতলব উত্তর ব্যুরো:

চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার সুলতানাবাদ ইউপির স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী আবুবকর সিদ্দিক খোকন বলেছেন, আমি আপনাদের প্রতি কৃতজ্ঞ হয়ে গেছি। আমাকে আর একটি বার সুযোগ দিন, তাহলে চেয়ারম্যান হয়ে আপনাদেরকে বুজিয়ে দিয়ে আমি কেমন মানুষ, এবং নজির সৃষ্টি করবো। দিন রাত আপনাদের সেবায় নিজেকে নিয়োজিত রাখবো। সেবা করার মন থাকলে যে করা যায়, তাও বুজিয়ে দিবে। কোন মানুষ কখনো কোন বিষয়ে হয়রানির স্বীকার হবে না। শুক্রবার বিকালে টরকী বাজারে এক পথসভায় বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

ঘোড়া প্রতীকের প্রার্থী আবুবকর সিদ্দিক খোকন আরও বলেন, আমি আমার জীবনে ৩০ বছর ধরে রাজনীতি করছি। এরমধ্যে ছাত্রলীগ, যুবলীগ ও পরে আওয়ামলী করতেছি। ২১ বছর শুধু সুলতানাবাদ ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের সাথে রাজনীতি করতেছি। দলে যখন যা প্রয়োজন হয়েছে তা ই দিয়েছি। শুধু তাই নয় সাধারণ মানুষ ও দলীয় নেতাকর্মীদের সুখে দুঃখে পাশে থেকেছি। তাই আমি দলীয় প্রতীক আশা করেছিলাম। কিন্তু জানিনা কোন অদৃশ্য শক্তির কারণে নৌকা প্রতীক পাই নি। তারপর আমি জনগণের চাহিদার কারণে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছি। মানুষ আমাকে নির্বাচন করতে বলেছেন। দলীয় নেতাকর্মীরাও সুলতানাবাদ ইউনিয়নে দলকে বাঁচাতে আমাকে প্রার্থী হওয়ার অনুরোধ করেছেন। কারণ তৃণমুলের সকল সমর্থন পাওয়ার পরও আমাকে নৌকা প্রতীক দিয়েছেন।

খোকন বলেন, আপনারা আমাকে একটি বার নির্বাচিত করুন। আমি আপনাদের ঋণ শোধ করার চেষ্টা করবো। মানুষ বর্তমান সরকারের ডিজিটাল সেবা থেকে শুরু করে সবধরনের সেবা পাবেন। ঘরে ঘরে সেবা পৌছে দিবো। আমি নির্বাচিত হলে এই অবহেলিত সুলতাবাদ ইউনিয়নকে একটি মডেল ইউনিয়ন হিসেবে গড়ে তোলবো। আপনারা আমার জন্য দোয়া করবেন এবং ঘোড়া মার্কায় একটি করে ভোট দিবেন।

অন্যান্য বক্তারা বলেন, বিগত দিনে সুলতানাবাদ ইউনিয়নে সঠিক লোকের কাছে নৌকা প্রতীক যায়নি। এবারও তার ব্যতিক্রম হয়নি। তাই আমরা এই সুলতানাবাদ ইউনিয়নে আওয়ামী লীগকে রক্ষা করতে তৃণমুল পক্ষ থেকে আবুবকর সিদ্দিক খোকনকে প্রার্থী হতে বলেছি। আমরা সকল তৃণমুল নেতাকর্মীরা সমর্থন দেওয়ার পরও নৌকা পায়নি আবুবকর সিদ্দিক খোকন। তাই ঘোড়া প্রতীকের বিজয় নিশ্চিত করে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে আমরা পৌছে দিব সুলতানাবাদ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক।

ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল করিম সরকারের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মজিবুর রহমানের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শফিকুল ইসলাম খন্দকার, আওয়ামী লীগ নেতা গোলাম কিবরিয়া লিটন, আব্দুর রইস সরকার, ইন্দুরিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক আব্দুস ছাত্তার মাস্টার, প্রভাষক রুহুল আমিন, ইছা পাটোয়ারী, আওয়ামী লীগ নেতা জসিম সরকার, জেলা যুবলীগ যুবলীগের সাবেক সদস্য মহিবুল্লাহ খোকন, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুর রব বেপারী, ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি আব্দুল কাদের জিলানী, সাধারণ সম্পাদক গফুর সরকার, মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী নাসরিন সুলতানা লাভলী, ইউনিয়ন কৃষক লীগের সভাপতি সাইফুল ইসলাম স্বপন, ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মোঃ কামাল হোসেন, ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি মাজহারুল ইসলাম শান্ত প্রমুখ। এসময় শত শত নারী পুরুষ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠান শুরুতে পবিত্র কোরআন তেলোয়াত তেলোয়াত করেন আ’লীগ নেতা আব্দুস সালাম। গীতা পাঠ করেন নিপেন সরকার।

Recommended For You

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *