সেবা দিয়ে যাচ্ছে জুয়েলের কিউআরসি

নিজস্ব প্রতিবেদক:

করোনা ভাইরাস কোভিড-১৯ মোকাবেলায় অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে এ্যাড. জিল্লুর রহমান জুয়েলের উদ্যোগে ও সার্বিক ব্যবস্থাপনায় গঠিত (ছঁরপশ জবংঢ়ড়হংব ফঁৎরহম ঈৎরংরং) কিউআরসি সেবা। জরুরী অবস্থায় অসহায় মানুষগুলোর পাশে থেকে গত ২৫ মার্চ থেকেই নিরলস পরিশ্রম করে যাচ্ছে কিআরসি টিম। এ পর্যন্ত ১শ’ ৯৫ জনের বাসায় বিনামুল্যে জরুরী ঔষধ, ৭শ’ ৩৮ জনের বাসায় বিনামুল্যে খাদ্য সামগ্রী, ৩৭ জন জরুরী রোগীকে হাসপাতালে পৌঁছে দেয়া, ৬৫ জনের বাসায় বিনা পারিশ্রমিকে বাজার করে দেয়া, ২৮ জনের বাসার প্রিপেইড মিটারে লোড করা, ৫৬ জনকে জরুরী অবস্থায় পরিবহন সেবা প্রদান করা হয়। যা চাঁদপুর জেলাসহ বাংলাদেশের মধ্যে একটি যুগান্তকারী পদক্ষেপ। কোন সরকারি সাহায্যের আসায় বসে না থেকে এ্যাড. জিল্লুর রহমান জুয়েলের নিজস্ব উদ্যোগে ও সার্বিক ব্যবস্থাপনায় মোঃ মেহেদী হাসান, নাজমুল হাসান বাঁধন, ডাঃ এস এম ফরিদসহ কিউআরসি সংগঠনের কার্যাবলী তৈরি করেন এ্যাড. জিল্লুর রহমান জুয়েল।

গত ২০ মার্চ থেকেই কার্যক্রম শুরু করার ইচ্ছা থাকলেও ২৫ মার্চ থেকে চাঁদপুর বাইক রাইডার্সসহ মাঠে নেমে পড়েন সকলে। এরমধ্যে ছাত্রলীগ ও যুবলীগসহ আরো শ’ খানেক ভলান্টিয়ার যুক্ত হয় কিউআরসি টিমে।
কিউআরসি-এর মাধ্যমে জনগনের দরজায় সেবা নিয়ে পৌঁছে যাচ্ছে একদল তরুণ। কিউআরসি-এর হটলাইনে থাকা নাম্বারে কল দিয়ে নিজের প্রয়োজন বলা মাত্রই ঘরে পৌঁছে যায় বিনামুল্যে ঔষধ, অসহায়দের মাঝে খাদ্য সামগ্রী এবং ডাক্তারি সেবা। শুধু তাই নয়, করোনায় ঝুঁকি এড়াতে যারা ঘরে আছেন তাদের প্রয়োজন মতো বাজার কিংবা প্রি-পেইড মিটারে লোডসহ বিনা পারিশ্রমিকে কাজ করে যাচ্ছে কিউআরসি টিম।

চাঁদপুর শহরসহ জেলার মানুষের কাছে স্বাস্থ্য সেবা পৌছে দিতে ২৪ ঘন্টাই ডাক্তারদের পরামর্শ গ্রহণের জন্য হেল্প লাইন করা হয়। চাঁদপুর পৌর এলাকার মধ্যে অবস্থিত যারা ঔষধ সংগ্রহ করতে পারছেন না তাদেরকে বিনামূল্যে ঔষধ সরাবরাহের ব্যবস্থাসহ জরুরী অসুস্থ্য রোগীদের পরিবহন ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়। কিউআরসি সেবা চালু হওয়ার পর থেকে এখন পর্যন্ত প্রায় ২শ’ ব্যাক্তিকে জরুরী অবস্থায় বিনামুল্যে ঔষধ, বাড়ীতে বাজার ও প্রিপেইড মিটারে লোডসহ সেবা দেয়া হয় এবং ১১শ’ ১৯ ব্যক্তির বাড়িতে বিনামুল্যে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দেয়া হয়।

জরুরি অবস্থার কথা বিবেচনা করে চাঁদপুর পৌরসভা নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী ও জেলা আওয়ামী লীগের শিক্ষা ও মানব সম্পদ বিষয়ক সম্পাদক এ্যাড. জিল্লুর রহমান জুয়েলের উদ্যোগে কিউআরসি সেবা চালু করা হয়। এরকম একটি মহতী উদ্যোগের কারণে সর্বমহলে প্রশংসীত হন তিনি। চাঁদপুরের বহু বিত্তবান ও সমাজসেবী থাকলেও তিনি সর্বপ্রথম জনগনের সেবা এগিয়ে আসেন। নিজের মোবাইল নাম্বারটি উন্মুক্ত করে দেন। যতজনই মোবাইল নাম্বারে কল দিয়েছেন প্রত্যেকেই খুবই দ্রুত সেবা পেয়েছেন। কিউআরসি টিম ছাড়াও অ্যাড. জিল্লুর রহমান জুয়েলের উদ্যোগে প্রায় ৭ হাজার লোকের ঘরে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দেয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে এ্যাড. জিল্লুর রহমান জুয়েল বলেন, বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে হাজারো মানুষ মৃত্য বরণ করেছে। বাংলাদেশের অবস্থাও ভয়াবহ হতে পারে যদি আমরা সচেতন না হই। বর্তমান সরকার এ পরিস্থিতি মোকাবেলায় সর্বোচ্চ চেষ্টা করে যাচ্ছে। বর্তমানে সারা বাংলাদেশের মানুষই করোনা নিয়ে এক ধরণের আতঙ্কের মধ্যে রয়েছেন। সরকারি নিষেধাজ্ঞার কারণে শহরে যানচলাচল, দোকানপাট, সরকারি-বেসরকারি অফিস, স্কুল-কলেজ বন্ধ রয়েছে। এ পরিস্থিতি মোকাবেলায় আমাদের কিউআরসি টিম আপনাদের সেবায় সার্বক্ষণিক কাজ করে যাবে। আমাদের মেডিকেল টিম আপনাদেরকে ২৪ ঘন্টাই মোবাইল ফোনের মাধ্যমে আপনার শারীরিক অবস্থার উপর নির্ভর করে ঔষধ বা হাসপাতালে যোগাযোগ করতে বলা হচ্ছে। দুর্গম এলাকা বা কেউ ঔষধ নেয়ার মতো অবস্থা না থাকলে বিনামূল্যে ঔষধ পৌঁছে দেয়ার ব্যবস্থা করা হচ্ছে। অসহায়দের ক্ষেত্রে ঘরে খাবার না থাকলে যোগাযোগ করলে চাল, ডাল, খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে যাচ্ছে। জরুরী রোগীদের ক্ষেত্রে হাসপাতালে পরিবহনের ব্যবস্থা এবং নিত্য প্রয়োজনীয় পন্য বিনা পারিশ্রমিকে মানুষের কাছে পৌঁছে দেয়া হচ্ছে। আশাকরি মানুষ এতে উপকৃত হচ্ছে। আপনারা বাসায় থাকুন, নিরাপদ থাকুন, আপনাদের প্রয়োজনে আমরা পৌঁছে যাবো।

Recommended For You

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *