স্বাধীনতার বিপক্ষে নেতৃত্ব দিচ্ছে জামাত ও বিএনপি: লিখিল

মনিরা আক্তার মনি ॥

বিএনপি-জামায়াত নতুন করে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হচ্ছে, তারা শেখ হাসিনার উন্নয়নের ধারাবাহিকতাকে বাধাগ্রস্ত করতে চাইছে বলে উল্লেখ করে যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মাইনুল হোসেন খানঁ নিখিল বলেন, ঐক্যবদ্ধ শক্তি দিয়ে এ ষড়যন্ত্রকে মোকাবিলা করতে হবে। স্বাধীনতার পক্ষে এবং মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে নেতৃত্ব দিচ্ছেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ আর অন্যদিকে স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের বিপক্ষে নেতৃত্ব দিচ্ছে জামায়েত ইসলাম। জামায়েত ইসলামের অনুসারী হচ্ছে বিএনপি।

তিনি বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশে উন্নয়নের নতুন দিগন্ত উন্মোচিত হয়েছে। অর্থনীতির সকল ক্ষেত্রে অভূতপূর্ব উন্নয়ন হয়েছে। যেটি সারা পৃথিবীতে প্রশংসিত হচ্ছে, নন্দিত হচ্ছে।

মাইনুল হোসেন খাঁন নিখিল শনিবার চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার নিশ্চিন্তপুর উচ্চ বিদ্যালয় ও ডিগ্রি কলেজ মাঠে ব্যাচ’১৯৭৯ এর পক্ষ থেকে শিক্ষকদের সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ সব কথা বলেন।

এসময় তিনি বলেন, বিশ্বের সঙ্গে প্রতিযোগিতা করে দেশকে আরও উন্নত সমৃদ্ধ করতে হলে তরুণ মেধাবীদের জ্ঞান-বিজ্ঞানে আরও বেশি দক্ষ হতে হবে, প্রযুক্তিতে আরও বেশি সক্ষমতা অর্জন করতে হবে। মঙ্গলগ্রহে যাওয়ার চিন্তা করছে মানুষ এখন, এই সময়ে প্রযুক্তিতে পিছিয়ে থাকলে কোনদিনই এ দেশ উন্নত দেশে পরিণত হবে না। সেজন্য মেধাবীদের জন্য উন্নত প্রশিক্ষণ ও উচ্চতর শিক্ষার ব্যবস্থা করতে হবে। যার মাধ্যমে তারা নতুন ও সময়োপযোগী প্রযুক্তি নিয়ে আসতে সক্ষম হবে।

শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে মাইনুল হোসেন খাঁন নিখিল বলেন, এ দেশটিকে তোমাদের ভালবাসতে হবে, দেশের মানুষকে ভালবাসতে হবে। সূর্যের মত তোমাদের আলোয় সবাইকে আলোকিত করবে। বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও চেতনাকে ধারণ করে নিজেদের জীবনকে গড়বে। তোমাদের মেধা, কাজ ও যোগ্যতার মাধ্যমে দেশকে উন্নত সমৃদ্ধ দেশে পরিণত করবে।

শনিবার (১২ মার্চ) সকালে নিশ্চিন্তপুর উচ্চ বিদ্যালয় ও ডিগ্রি কলেজ মাঠে ব্যাচ’১৯৭৯ এর পক্ষ থেকে শিক্ষকদের সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে ব্যাচ’১৯৭৯ এর প্রাক্তন শিক্ষার্থী বিল্লাল হোসেন এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ও নিশ্চিন্তপুর উচ্চ বিদ্যালয় ও ডিগ্রি কলেজ সভাপতি এবং ব্যাচ’১৯৭৯ এর প্রাক্তন শিক্ষার্থী আলহাজ্ব মাঈনুল হোসেন খাঁন নিখিল। ব্যাচ’১৯৭৯ এর প্রাক্তন শিক্ষার্থী নজরুল ইসলাম এবং নিশ্চিন্তপুর কলেজের প্রধান সহকারী হাবিবউল্লাহ প্রধানের যৌথ সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন প্রাক্তন শিক্ষক এইচএম জিলানী, প্রাক্তন শিক্ষক মোর্শেদ আলম, প্রাক্তন শিক্ষক মোশারফ হোসেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মোতাহার হোসেন হোসেন সুফল, সাবেক উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মুজাম্মেল হক, দূর্গাপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মাহবুব হোসেন প্রধান, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি দেওয়ান জহির, সিনিয়র সহ-সভাপতি কামরুজ্জামান ইয়ার, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও ইসলামাবাদ ইউপি চেয়ারম্যান সাখোয়াত হোসেন সরকার মুকুল, উপজেলা সেচ্ছাসেবক লীগের সদস্য সচিব অ্যাড. আক্তারুজ্জামান, বাগানবাড়ি ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল মামুন, ষাটনল ইউপি চেয়ারম্যান ফেরদৌস আলম সরকারসহ ব্যাচ’১৯৭৯ এর প্রাক্তন শিক্ষার্থীসহ আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, এবং বিদ্যালয়ের শিক্ষক, শিক্ষার্থীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

এসময় নিশ্চিন্তপুর স্কুলের ৬জন শিক্ষককে সম্মাননা ও ৮জন প্রয়াত শিক্ষককে মরণোত্তর সম্মাননা দেওয়া হয়।

শেয়ার করুন: