স্বাধীনতার সুফল জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে হবে: পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী

মতলব উত্তর ব্যুরো:

পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী প্রফেসর ড. শামসুল আলম বলেছেন, গত দুই বছর তাদের পড়াশোনায় অনেক বিঘœ ঘটেছে। অনেকে পারিবারিক-সামাজিক এক ধরনের ট্রমার মধ্য দিয়ে গেছে। তাদের যেখানে ঘাটতি রয়েছে সেখানে নজর দেব বেশি।

শনিবার বিকেলে চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার লুধুয়া স্কুল এন্ড কলেজে মুজিব শতবর্ষ ও মহান স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী-২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষে একাদশ শ্রেণীর শিক্ষার্থীদের ওরিয়েন্টেশন- ২০২২ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, যেখানে ঘাটতি রয়েছে সেখানে নজর দেব বেশি। আমরা হয়তো এক শিক্ষাবর্ষে সব ঘাটতি পূরণ করতে পারবো না কিন্তু আগামী শিক্ষাবর্ষে সেটুকুু পূরণ করতে পারবো।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, স্বাধীনতাকে অর্থবহ করতে হলে স্বাধীনতার সুফল জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে সবাইকে সততা, নিষ্ঠা ও আন্তরিকতার সঙ্গে নিজ নিজ অবস্থান থেকে দায়িত্ব পালন করতে হবে। ব্যক্তিগত, পারিবারিক, সামাজিক, রাজনৈতিক ও রাষ্ট্রীয় প্রতিটি কাজে দায়িত্বশীলতার পরিচয় দিতে হবে। সবক্ষেত্রে নীতি-নৈতিকতা ও আদর্শ প্রতিষ্ঠার পাশাপাশি যোগ্য নেতৃত্ব গড়ে তুলতে হবে। তিনি বলেন, স্বাধীনতা আমাদের সবচেয়ে বড় অর্জন। কিন্তু এই স্বাধীনতা হঠাৎ করেই আসেনি। এর পেছনে রয়েছে শোষণ, নির্যাতন ও বঞ্চনার দীর্ঘ হতিহাস। হাজার বছরেরও বেশি সময় শোষণ-বঞ্চনা, নির্যাতন-নিপীড়নের দুঃসহ পথ অতিক্রম করলেও বাংলা ভাষাভাষী এ জনপদের মানুষের কোনো স্বাধীন সার্বভৌম জাতিরাষ্ট্র ছিল না।

লুধুয়া হাই স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ জাকির হোসেন খানের সভাপতিত্ত্বে কলেজের প্রভাষক ভূগোল ও পরিবেশ বিজ্ঞান মো. জহির হোসেনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে রাখেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা গাজী শরীফুল হাসান, উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শাহিনা আক্তার, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মো. আব্দুল কাইউম খান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও গজরা ইউপি চেয়ারম্যান শহীদ উল্লাহ প্রধান প্রমুখ।

শেয়ার করুন: