হজারো মানুষের ভালবাসায় শফিক ভূঁইয়ার চির বিদায়

আনোয়ারুল হক:

বিএনপি’র কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র পদে নির্বাচনে বিএনপি মনোনীত ধানের শীষ প্রার্থী, সাবেক পৌর চেয়ারম্যান শফিকুর রহমান ভূঁইয়ার নামাজে জানাযায় হাজার হাজার মানুষের ঢল নামে ছিল ।

বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক জীবনের অধিকারী শফিক ভূঁইয়ার মরদেহ এক নজর দেখতে শহরের হাসান আলী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে দল-মত নির্বিশেষে সর্বস্তরের মানুষ এসে জমাযত হয়। সন্ধ্যা পৌনে ছয়টায় নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

রাতে শহরের রহমত কলোনীতে ২য় জানাযা অনুষ্ঠিত হয়।মালয়েশিয়া থেকে একমাত্র ছেলে আসার পর আজ শহরের গুনরাজদী এলাকায় ৩য় জানাযা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হবে।

জানাযা স্থানীয় এমপিও শিক্ষা মন্ত্রী ডা.দীপু মনির বড় ভাই জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি ডা.জেআর ওয়াদুদ টিপু, বিএনপি’র কেন্দ্রীয় কমিটির নেতা শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, এহসানুল হক মিলন, চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও বর্তমান পৌর সভার মেয়র নাসির উদ্দিন আহমেদ, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব ওচমান গণি পাটওয়ারী জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আবু নঈম পাটওয়ারী দুলালসহ বিএনপি’র সাবেক সংসদ সদস্যগণ অংশগ্রহণ করেন।

১৩ মার্চ বিকাল ৪টা বাজতেই হাসান আলী মাঠ কানায় কানায় পরিপূর্ণ হয়ে ওঠে। পরে মুসল্লীরা মুক্তিযোদ্ধা সড়ক, মহিলা কলেজ রোড , হাজী মহসিন রোড ও রেললাইনে দাঁড়িয়েজানায নামাজে অংশগ্রহণ করে। জানাজার নামাজ শেষে বিএনপি-আওয়ামী লীগ ও বিভিন্ন পেশাজীবী সংগঠনের নেতৃবৃন্দরা ফুলের শ্রদ্ধাঞ্জলি প্রদান করেন।

মরহুমের জীবন কর্মের স্মৃতিচারণে জেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক অ্যাড. সেলিম উল্যাহ সেলিম ও দেওয়ান শফিকুজ্জামান এর সঞ্চালনায় জানাযার নামাজ পূর্বে আরো বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় বিএনপির প্রবাসী কল্যান বিষয়ক সম্পাদক ও জেলা বিএনপির আহ্বায়ক শেখ ফরিদ আহমেদ মানিক, কেন্দ্রীয় বিএনপির প্রচার সম্পাদক সাবেক এমপি শহীদ উদ্দিন এ্যানি, সাবেক শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী আ ন ম এহসানুল হক মিলন, চাঁদপুর-৩ আসনের সাবেক এমপি এস এ সুলতান টিটু, কুমিল্লা বিভাগীয় বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মোস্তাক মিয়া, জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি ইঞ্জিঃ মমিনুল হক, জেলা বিএনপির সাবেক আহ্বায়ক সফিউদ্দিন আহম্মেদ, সাবেক সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হামিদ মাষ্টার।

এদিকে শফিক ভাইয়ের মৃত্যুর খবরে স্থবির হয়ে পড়ে পুরো শহর। প্রিয় নেতাকে এক নজর দেখতে শহরের ট্রাক ঘাটস্থ নিজ বাসভবনে মানুষের ঢল নামে। শফিক ভূইয়ার আকস্মিক মৃত্যু যেনো কেউ মেনে নিতে পারছিল না। নেতাকর্মীদের চোখের জল আর আর্তচিৎকারে ভারী হয়ে উঠে বাতাস।ভোড় বেলা শফিক ভাইয়ের মৃত্যুর খবর শুনে তার নিজ বাসভবনে ছুটে যান জেলা আওয়ামী লীগ-বিএনপির শীর্ষ নেতৃবৃন্দ ও চাঁদপুর পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী জিল্লুর রহমান জুয়েল।

বাদ আছর হাসান আলী স্কুল মাঠে নির্ধারিত হয় জানাযার সময়। জানাজায় অংশ নিতে বিকেল ৩টা থেকে বিভিন্ন উপজেলা, ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড থেকে নেতাকর্মীরা আসতে শুরু করে। এজন্য প্রিয় নেতাকে শেষ বিদায় জানাতে নেতাকর্মীদের উপচে পড়া ঢল।

মরহুমের পরিবারের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন জামাতা হাসান।মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, ১ ছেলে ও ২ মেয়েসহ অসংখ্য গুনরাহী রেখে গেছেন। তার আরও দুটি জানাযার নামাজ অনুষ্ঠিত হওয়ার পর চাঁদপুর পৌর কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।

এ সময় মরহুমের স্মৃতিচারনে বক্তারা বলেন,শফিকুর রহমান ভুঁইয়া ছিলেন দলের নিবেদিত প্রাণ। দু:সময়ে তিনি দলের নেতৃবৃন্দকে একত্রিত করে রাজনীতি করেছেন। তার মত এমন রাজনীতি ব্যক্তি আবার কবে আসবে, তা কেউ জানেন না। আজকের জানাযায় প্রমান করে শফিক ভূইয়া জনগনের মাঝে কতটা প্রিয় ব্যাক্তি ছিলেন। তিনি সব সময় মানুষের পাশে দাড়িয়েছেন। সমাজের সকল ভালো কাজে সম্পৃক্ত হয়েছেন। আমরা তার রুহের মাগফেরাত কামনা করছি।

শফিকুর রহমানের আকষ্মিক মৃত্যুতে রাজনৈতিক অঙ্গনে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। সকালে তাঁর বাসায় ছুটে যান সহযোদ্ধারা। আওয়ামী লীগের মেয়রপ্রার্থী জিল্লুর রহমান জুয়েল, বর্তমান মেয়র জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি নাসিরউদ্দিন আহমদসহ অনেকেই ছুটে যান সেখানে।

চাঁদপুর পৌরসভার সাবেক এ চেয়ারম্যানেরর মৃত্যুতে চাঁদপুর জেলা বিএনপিসহ পৌরবাসীর মাঝে শোকের ছায়া নেমে আসে। মরহুমের প্রথম নামাজে জানাযা শুক্রবার বাদ আছর চাঁদপুর শহরের হাসান আলী সরকারি বিদ্যালয় মাঠে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শফিকুর রহমান ভূঁইয়ার মৃত্যুতে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, জেলা বিএনপির আহ্বায়ক শেখ ফরিদ আহমেদ মানিক শোক প্রকাশ ও পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন।

Recommended For You

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *