হঠাৎ বৃষ্টিতে কাঁচা ইট নষ্ট, ক্ষতির মুখে মালিকরা

নিজস্ব প্রতিবেদক:

চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলায় শুক্রবার হঠাৎ বৃষ্টি হওয়ায় ১৩ ইটভাটা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বৃষ্টিতে অধিকাংশ কাঁচা ইট নষ্ট হয়ে গেছে বলে জানিয়েছেন ভাটার মালিকেরা। এতে আর্থিকভাবে ক্ষতির মুখে পড়েছেন তারা। যার কারণে সাময়কিভাবে ইটভাটাগুলো বন্ধ হওয়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে।

জানা যায়, শুষ্ক আবহাওয়া থাকায় প্রতিবছর এই সময়ে ইট তৈরি করা হয় ভাটাগুলোতে। কাঁচা মাটি রোদে শুকিয়ে নিয়ে আগুনে পুড়ে প্রস্তুত করা হয় ইট। কিন্তু এবার মাঘ মাসের শেষের দিকে গতকাল শুক্রবার দুপুর থেকে শুরু হয় গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি। দিনভর বৃষ্টি হয়।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোহাম্মদ সালাউউদ্দিন জানান, লঘুচাপের কারণে চাঁদপুর সহ এই অঞ্চলের বৃষ্টিপাত শুরু হয়েছে।

মতলব উত্তর উপজেলার ফতেপুর পূর্ব ইউনিয়নের এনায়েত নগর সাহেব বাজারে অবস্থিত ব্রিকফিল্ড এর মালিক সরকার মোঃ আলাউদ্দিন বলেন, ‘আমাদের ইটভাটায় প্রায় ৬ লাখ কাঁচা ইট রোদে শুকাতে দেওয়া আছে। শুক্রবার বিকাল থেকে বৃষ্টি শুরু হওয়ায় কাঁচা ইট রক্ষায় প্রায় এক লাখ টাকার প্লাস্টিক কেনা হয়েছে। কিন্তু এরপরও প্রায় তিন লাখ কাঁচা ইট নষ্ট হয়ে গেছে। যেটুকু কাঁচা ইট চাতালে রয়েছে, সেগুলোও আংশিক গলে গেছে।

মাটি থেকে কাঁচা ইট তৈরি করতে শ্রমিক খরচসহ প্রতিটি ইটে খরচ হয় প্রায় তিন টাকা। এতে তাদের ভাটার প্রায় ৯ লাখ টাকা ক্ষতি হয়েছে বলে জানান তিনি।

গোপালকান্দি গ্রামের ইটভাটা মালিক কামাল হোসেন বলেন, ‘এক হাজার কাঁচা ইট তৈরি থেকে শুকানো পর্যন্ত প্রায় ৩ হাজার টাকা খরচ পড়ে। এই অবস্থায় ১ লাখ কাঁচা ইট নষ্ট হওয়া মানে প্রায় ৩ লাখ টাকা নষ্ট হওয়া।’

তিনি আরও বলেন, ‘বৃষ্টির আশঙ্কায় কাঁচা ইটে পলিথিন দিয়ে ঢেকে দেওয়ার পরও তা রক্ষা করা সম্ভব হয়নি। এতে আবার নতুন করে ইট তৈরি না করা পর্যন্ত ইটভাটা বন্ধ রাখার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে।

Recommended For You

Leave a Reply

Your email address will not be published.