হাইমচরের প্রথম উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান চুন্নু মিয়ার দাফন সম্পন্ন

মাহমুদুল মতিন ॥

চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা, হাইমচর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক একাধিকবারের সভাপতি, হাইমচর উপজেলা প্রথম দুইবারের সাবেক চেয়ারম্যান এবং হাইমচর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান , নদী ভাংঙ্গন রক্ষা মুক্তি আন্দোলনের মহান নেতা আলহাজ্ব কায়কোবাদ চুন্নু মিয়া সরকার (৭৫) আর নেই। (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

রোববার হাইমচর উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান দীর্ঘদিন ধরে জটিল রোগে চিকিৎসাধীন অবস্থায় চুন্নু সরকার তার ছেলে ব্যারিস্টার হামিদুল মেজবাহ রাসেল সরকারের ঢাকাস্থ বাসভবনে ইন্তেকাল করেন।

তার মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন হাইমচর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোঃ হুমায়ুন কবির প্রধানীয়া ও হাইমচর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নুর হোসেন পাটওয়ারীসহ হাইমচরের সর্বস্তর মহলের মানুষ। মরহুমের নামাজে জানাযা সোমবার তার নিজ বাড়ি হাইমচরের চরভৈরবী ইউনিয়নের গাজীনগরের সাবু মাস্টার এলাকায় অনুষ্ঠিত হয়েছে ।

এসময় উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ফজলুল হক সরকার, হাইমচর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হুমায়ুন কবির প্রধানীয়া,হাইমচর প্রেসক্লাবে সভাপতি খুরশিদ আলম শিকদার,উত্তর আলগী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আতিকুর রহমান পাটোয়ারী, হাইমচর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জুলফিকার আলি জুলহাস সরকারসহ এই সময় তার ছেলে ব্যারিস্টার হামিদুল মেজবাহ রাসেল বাবা আত্মার মাগফেরাত কামনা করে বক্তব্য রাখেন এরপর পারিবারিক গোরস্থানে দাফন করা হবে তাকে।

বর্নাঢ্য রাজনৈতিক জীবনের অধিকারী, সর্বদা অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদী কন্ঠস্বর ছিলেন আলহাজ্ব কায়কোবাদ চুন্নু সরকার।

এদিকে বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক চুন্নু সরকারের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নাছির উদ্দিন আহমেদ ও সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব আবু নঈম পাটওয়ারী দুলাল। তারা মরহুমের রুহের মাগফেরাত কামনা করেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন।

শেয়ার করুন: