হাজীগঞ্জে তরুণীর গলায় ফাঁস

হাজীগঞ্জে সিলিং ফ্যানের সাথে ঝুলন্ত অবস্থায় এক তরুণীর মৃত দেহ উদ্ধার করে পুলিশ। ১৩ আগস্ট শুক্রবার হাজীগঞ্জ পৌরসভার টোরাগড় কাজী বাড়ির আহম্মেদ শরীফের বড় মেয়ে মনিকা আক্তার (১৮) সিলিং ফ্যানের সাথে ওড়না পেছিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে।

খবর পেয়ে হাজীগঞ্জ থানার উপ পরিদর্শক জাকারিয়া নিহতের মৃতদেহ ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার করে। লাশ ময়না তদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে এবং এ বিষয়ে অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে।

নিহতের মা বলেন, আমার মেয়ে অনেক রাগী ও বদমেজাজী ছিল। রাগ করে সে গত রাতে তার রুমে ঘুমিয়ে পড়ে। সকালে ঘুম থেকে ডাকলে কোন সাড়াশব্দ না পেয়ে ঘরের বাকি সদস্যদের সহযোগিতার দরজা ভেঙ্গে দেখি গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। রাগ নিয়ন্ত্রণ করতে না পেরে সে আত্মহত্যা করেছে বলে পরিবারের লোকজনের ধারনা।
গলায় ফাঁস

কিন্তু এ রাগ বা অভিমানের কারণ এখনো জানা না গেলেও প্রাথমিকভাবে জানা যায়, গত চারদিন আগে পারিবারিক ভাবে তার পছন্দের ছেলের সাথে বিয়ে হয়। বিয়ে হলেও নিজ বাড়িতেই সে থাকতো।

জামাই বা শশুর বাড়ির লোকদের সম্পর্কে পারিবারিক ভাবে আলোচনা সমালচনা থেকে হয়তো রাগ নিয়ন্ত্রন করতে না পেরে আত্মহত্যার মত এমন পথ বেচেঁ নিয়েছে কিনা তা শুরাতাহাল রির্পোট পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে।

Recommended For You

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *