হাজীগঞ্জে সংঘর্ষের ঘটনায় ১০ মামলায় আসামি ৫ হাজার

হাজীগঞ্জ প্রতিবেদক:

চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে মন্দিরে হামলা-সংঘর্ষের ঘটনায় এ পর্যন্ত ১০টি মামলা হয়েছে। এসব মামলায় আসামি করা হয়েছে অজ্ঞাতনামা প্রায় ৫ হাজার জনকে। ঘটনার পর থেকে এখন পর্যন্ত গ্রেফতার করা হয়েছে ২৯ জনকে। তাদেরকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) দুপুরে চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক (ডিসি) অঞ্জনা খান মজলিশ এসব তথ্য নিশ্চিত করেন।

এদিকে ঘটনার তদন্তে চাঁদপুরের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেটকে প্রধান করে গঠিত তদন্ত কমিটি ৭ দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দেওয়ার কথা থাকলেও, সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে আরও সময় চেয়েছে তদন্ত দল। অপর দিকে ঘটনাটি তদন্ত করছে চট্রগ্রামের অতিরিক্ত ডিআইজি ইকবাল হোসেনের নেতৃত্বে গঠিত তদন্ত কমিটিও। ২টি কমিটিই তদন্তে আরও সময় চেয়েছে।

হাজীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হারুনুর রশিদ জানান, সংঘর্ষের ঘটনায় এখন পর্যন্ত ১০টি মামলা হয়েছে। এর মধ্যে প্রথমেই পুলিশ বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা ২ হাজার থেকে ২২শ জন আসামির ২টি করে মামলা দায়ের হয়। পরে ক্ষতিগ্রস্ত ৮টি মন্দিরের সভাপতি/সাধারণ সম্পাদক আরও ৮টি মামলা করেন। সর্বশেষ মামলা হয়েছে ২০ অক্টোবর (বুধবার)। প্রতিটি মামলায় অজ্ঞাতনামা ৩ থেকে ৪শ জনকে আসামি করা হয়েছে। এ পর্যন্ত গ্রেফতার করা হয়েছে ২৯ জনকে।

উল্লেখ্য, কুমিল্লার ঘটনার জেরে বুধবার (১৩ অক্টোবর) রাতে হাজীগঞ্জ পৌর এলাকায় বিশৃঙ্খলার ঘটনা ঘটে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা চালায় পুলিশ। সংঘর্ষের পর পুলিশের গুলিতে ঘটনাস্থলে ৩ জন, হাজীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়ার পর ১ জন এবং ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আরও ১ জনসহ মোট ৫ জনের মৃত্যু হয়। মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন চট্টগ্রামের ডিআইজি আনোয়ার হোসেন।

Recommended For You

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *