হাজীগঞ্জে সড়কে প্রাণ গেল মোটরসাইকেল চালকের

হাজীগঞ্জ প্রতিবেদক:

হাজীগঞ্জে সড়কে প্রাণ গেলো সৌরভ হোসেন (২০) নামের এক মোটরসাইকেলের চালকের । এ ঘটনায় নাঈম হোসেন (১৯) নামের অপর মোটরসাইকেল আরোহী ও মোবারক হোসেন (৪৫) সিএনজি চালিত স্কুটারের চালক আহত হয়েছেন। ১৪ মার্চ সোমবার দিনগত রাতে চাঁদপুর-কুমিল্লা আঞ্চলিক মহাসড়কের হাজীগঞ্জের বাকিলা ইউনিয়নের বলাই স্যারের বাড়ির সামনে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত সৌরভ হোসেন চাঁদপুর সদর উপজেলার কুমারডুগী গ্রামের বরকন্দাজ বাড়ির মিন্টু মিয়ার ছেলে। আহত নাঈম হোসেন একই গ্রামের সরকার বাড়ির আব্দুল মান্নানের ছেলে ও সিএনজিচালিত স্কুটার চালক মোবারক হোসেন চাঁদপুর পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ডের খলিশাডুলি গ্রামের দর্জি বাড়ির মৃত মফিজ উদ্দিনের ছেলে।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন মোটরসাইকেল আরোহী নাঈম জানান, ইলেকট্রিক কাজের উদ্দেশ্যে কালো একটি পালসার মোটরসাইকেল যোগে কুমারডুগি থেকে হাজীগঞ্জের কৈয়ারপুল তার নানার বাড়িতে আসছিলেন। এ সময় মোটরসাইকেল চালক ছিলেন তার বন্ধু সৌরভ। পথিমধ্যে সিএনজি চালিত স্কুটারটি তাদের মোটরসাইকেলটিকে ধাক্কা দিলে মোটরসাইকেলটি সড়কে ছিটকে পড়ে। এ সময় চাঁদপুরমুখী একটি ভাউচার (জ্বালানি তৈল বহনকারী লরি ট্রাক) তাদের চাপা দেয়। অপর দিকে সিএনজিচালিত স্কুটারের চালক মোবারক হোসেন জানান, তিনি ৫ জন যাত্রী নিয়ে কচুয়ার উদ্দেশ্যে হাজীগঞ্জের দিকে আসছিলেন। এ সময় তেলের লরিটি মোটরসাইকেলটিকে ধাক্কা দিলে মোটরসাইকেলটি তার সিএনজিচালিত স্কুটারের উপর আছড়ে পড়ে।

এদিকে দুর্ঘটনার পর ঘটনাস্থলেই মারা যান মোটরসাইকেলের চালক সৌরভ। পরে স্থানীয়রা আহত নাঈম ও মোবারক হোসেনকে উদ্ধার করে হাজীগঞ্জ

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে। খবর পেয়ে হাজীগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক মো. মহসিন দুর্ঘটনাস্থল থেকে নিহতের মরদেহ উদ্ধারপূর্বক সড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক করেন।

এ বিষয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মো. গোলাম মাওলা বলেন, আহতদেরকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। হাজীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ জোবাইর সৈয়দ চাঁদপুর কন্ঠকে জানান, নিহতের মরদেহ উদ্ধারকরাসহ দুর্ঘটনাকবলিত মোটরসাইকেল ও সিএনজি চালিত স্কুটারটি জব্দ করা হয়েছে। নিহতের পরিবারের লোকজন আসলে মামলা নেয়া হবে।

Recommended For You

Leave a Reply

Your email address will not be published.