হাজীগঞ্জে হাতকড়া নিয়ে মাদক মামলার আসামীর পলায়ন ॥ আটক ২

হাজীগঞ্জ প্রতিবেদক॥

হাজীগঞ্জে ২০ মাদক মামলার আসামী জাকির হোসেন (৩৫) পুলিশের হাতকড়া পরা অবস্থায় পালিয়ে গেছে। পালানোর কয়েক ঘন্টার মধ্যে পুলিশ হাতকড়াসহ তাকে উদ্ধার করেছে। এ ঘটনায় পুলিশ ১৩ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেন। মামলার পরেই দুই জনকে আটক করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন হাজীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ হারুনুর রশিদ। পলাতক জাকির হোসেন উপজেলার বাকিলা ইউনিয়নের খলাপাড়া গ্রামের মৃত লাল মিয়ার ছেলে।

স্থানীরা জানান, একটি দুর্ঘটনায় বাকিলা গ্রামের মাদক বিক্রেতা ও সিএনজি স্কুটার চালক আ: মজিদের ছেলে মনির হোসেন গাজী বৃহস্পতিবার রাজধানীর একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়। নিহত মনিরের জানাজা পরের দিন শুক্রবার সকাল ১১টায় বাকিলা পূর্ব বাজার জামে মসজিদে অনুষ্ঠিত হয়।

সেই জানাজায় হাজীগঞ্জ থানা পুলিশ এএসআই মোজাম্মেলসহ সঙ্গীয় ফোর্স অন্য মাদক ব্যবসায়ীদেরকে ধরার জন্য আসে। জানাজা শুরুর কিছু পূর্বে মোজাম্মেল নিজে মাদক ব্যবসায়ী জাকিরকে জানাজাস্থল থেকে আটক করে হাতকড়া পরিয়ে থানায় নেওয়ার জন্য রওনা হয়।
এ সময় জাকিরের পক্ষ অবলম্বন করে মুষ্টিমেয় কয়েক মুসল্লি­ উপ-পরিদর্শক মোজাম্মেল হোসেনকে অনুরোধ করে জাকিরকে জানাজায় অংশগ্রহনের সুযোগটুকু দেবার জন্য। উপ-পরিদর্শক মোজাম্মল হোসেন সবার কথাকে বিশ্বাস করে হাতকড়া অবস্থায় জাকিরকে জানাজার সুযোগ করে দেবার সাথে সাথে জাকির পালিয়ে যায় ।

এ সময় উপ-পরিদর্শক মোজাম্মল হোসেন জাকিরকে ধরার জন্য চেষ্টা করলে জাকিরের সহযোগী বেশ কজন পুলিশের উপর হামলা করলে হাতকড়া নিয়ে জাকির পালিয়ে যায়। এ ঘটনার কয়েক ঘন্টা পর পুলিশ হাতকড়া উদ্ধার করতে পারলেও জাকিরকে আটক করতে পারেনি।

ঘটনার দিনই পুৃলিশ ১৩ জনকে আসামী করে হাজীগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করে। উক্ত মামলায় পুলিশ ইতোমধ্যে ২ জনকে আটক করেছে। এ দিকে ঘটনার পর থেকে খলাপাড়া গ্রামের আসামীরাসহ উক্ত মামলার অন্যআসামী সকল বাড়ির লোকজন পালিয়ে গেছে বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন।

হাজীগঞ্জ থানার ওসি হারুনুর রশীদ জানান,এঘটনায় নিয়মিত মামলা দায়েরসহ হাতকড়া উদ্ধার করা হয়েছে। শিগগিরই ছিনিয়ে নেয়া আসামীকে গ্রেফতার করা হবে।

এঘটনায় এএসআই মোজাম্মেল হোসেনের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন চাঁদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুদীপ্ত রায়।

চাঁদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুদীপ্ত রায় জানান, এএসআই মোজাম্মেলকে শোকজ করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

Recommended For You

Leave a Reply

Your email address will not be published.