হাজীগঞ্জে ৪ মৃত্যু নিয়ে যা বললেন চট্টগ্রাম রেঞ্জ ডিআইজি

নিজস্ব প্রতিবেদক:

কুমিল্লায় পবিত্র কোরআন অবমাননার ঘটনাকে কেন্দ্র করে চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে সংঘর্ষের ঘটনায় চার জনের নিহতের কথা জানিয়েছে পুলিশ। এ ঘটনায় সাত জনকে আটক করা হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে।

১৩ অক্টোবর বুধবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে হাজীগঞ্জ পৌর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশের পাশাপাশি দুই প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন করা হয়। পূজা শেষ না হওয়া পর্যন্ত বিজিবি সদস্যরা আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় কাজ করবেন বলে জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ।

১৪ অক্টোবর বৃহস্পতিবার চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে মন্দিরে হামলা ও হতাহতের ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন চট্রগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি আনোয়ার হোসেন।

এ সময় তিনি সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে চার জনের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করে বলেন, ‘মানুষের জানমাল নিরাপত্তায় অসাম্প্রদায়িক দাঙ্গা ঠেকাতে এবং পুলিশ নিজেদের আত্মরক্ষার্থে গুলি চালাতে বাধ্য হয়েছে। তার পরেও আমরা বিষয়টি ক্ষতি দেখবো। মানুষ যেন নিরাপত্তা বোধ করে চলাচল করতে পারে সেই পরিবেশ নিশ্চিত করে কাজ করে আসছে পুলিশ।’

এ সময় চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ, পুলিশ সুপার মিলন মাহমুদ, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নাছির উদ্দিন ভৃঁইয়া, সাধারণ সম্পাদক আবু নাঈম পাটোওয়ারী দুলাল,হাজীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান গাজী মাঈনুদ্দিন, নির্বাহী কর্মকর্তা মোমেনা আক্তার,চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র জিল্লুর রহমান জুয়েল,হাজীগঞ্জ পৌরসভার মেয়র মাহবুব-উল আলম লিপনসহ আওয়ামী লীগ ও বাজার ব্যবসায়ী সমিতির নেতৃবৃন্দ এবং হিন্দু সম্পাদয়ের লোকজন উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার করুন: