১৪ ফেব্রুয়ারি কচুয়া-ফরিদগঞ্জ পৌর নির্বাচন

আলমগীর তালুকদার, আ.কাদের:

কচুয়া ও ফরিদগঞ্জ পৌর নির্বাচন আগামিকাল ১৪ ফেব্রুয়ারি। এ নির্বাচনে কচুয়ার মেয়র পদে ৩জন,মহিলা কাউন্সিলর পদে ৮ জন ও সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৪৪ জন।

ফরিদগঞ্জে নৌকা,ধানের শীষ ও হাত পাখার ৩ জন মেয়র প্রার্থী এবং ৯টি ওয়ার্ডে কাউন্সিলর ৬৪ জন ও সংরক্ষিত মহিলা আসনে ১১ জন নির্বাচনে প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন। কচুয়ার নির্বাহী অফিসার দীপায়ন দাস শুভ রিটার্নিং অফিসার ও উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা হিসেবে কাজী আবু বকর সিদ্দিক সহকারী রিটার্নিং অফিসার দায়িত্ব পালন করছেন।

১৯৯৮ সালের ১০ মে কচুয়া পৌরসভা প্রতিষ্ঠিত হয়। পৌরসভাটি নাগরিক সেবার দিক থেকে বর্তমানে‘ক’ক্যাটাগরিতে রয়েছে। ৯ টি ওয়ার্ড ১১টি গ্রাম নিয়ে কচুয়া পৌরসভায় ভোটার রয়েছে ১৯ হাজার ৯৯ জন। এর মধ্যে পুরুষ ৯ হাজার ৬শ ২৩জন এবং মহিলা ৯ হাজার ৪শ ৭৬ জন। কেন্দ্র ৯ টি ।

কচুয়া নির্বাচনে দলীয় প্রতীক হিসেবে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের প্রার্থী নৌকা পেয়েছেন নাজমুল আলম স্বপন, ধানের শীষ প্রতীক পেয়েছেন বিএনপি প্রার্থী হুমায়ুন কবির প্রধান ও স্বতন্ত্র প্রার্থী আহসান হাবিব প্রাঞ্জল পেয়েছেন টেলিফোন প্রতীক ।

ফরিদগঞ্জ পৌরসভায় ১৯.৭৫ বর্গ কি.মি.এলাকায় ৯টি ওয়ার্ডে ২০টি গ্রামে নিয়ে গঠিত্। এখানে পুরুষ ভোটার রয়েছে ১৫ হাজার ৯ শত ৩৪ জন,মহিলা ভোটার রয়েছে ১৫ হাজার ১ শত ৫০ জন। ভোটার সংখ্যা ৩১ হাজার ৮৪ জন। কেন্দ্র ১৩টি ।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার শিউলী হরি রিটার্নিং অফিসার ও উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মিজানুর রহমান সহকারী রিটার্নিং অফিসারের দায়িত্ব পালন করবেন ।

জেলা প্রসাশনের জেলা প্রশাসক ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটগণ নির্বাচন মনিটরিং করবেন। ৯টি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ কারীদের প্রশিক্ষণ ইতোমধ্যেই শেষ হয়েছে। সকল প্রকার প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। প্রযোজনীয় সংখ্যক র‌্যাব,পুলিশের বিষেশ টীম,বিজেবি স্টাইকিং ফোর্সে হিসেবে কাজ করবেন।

Recommended For You

About the Author: News Room

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *