১৫ জুলাই সিনেবাজ-এর যাত্রার সূচনা

স্টাফ রিপোর্টার ॥

বাংলাদেশের চলচ্চিত্র অঙ্গণে মাত্র কয়েক বছরের মধ্যে খ্যাতি অর্জন করেছে মোঃ সেলিম খানের প্রযোজনা, পরিচালনা ও পরিবেশক প্রতিষ্ঠান শাপলা মিডিয়া ইন্টারন্যাশনাল। ইতোমধ্যে শাপলা মিডিয়া’র ব্যানারে বেশক’টি আলোচিত চলচ্চিত্র নির্মাণ করে চলচ্চিত্র তথা মিডিয়া জগতে বেশ সুনাম অর্জন করেছে এ প্রতিষ্ঠানটি। শাপলা মিডিয়া’র পর এবার চলচ্চিত্রপ্রেমি দর্শকদের জন্য নিয়ে আসছে বিনোদনের অন্যতম মাধ্যম ‘সিনেবাজ’।

“সিনেবাজ” বিনোদন এখানেই শিরোনামে আজ ১৫ জুলাই বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় সিনেবাজ পরীক্ষামূলক যাত্রা সূচনা অনুষ্ঠানে ঢাকাস্থ আন্তর্জাতিক সোনারগাঁ হোটেলের অভ্যন্তরে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকবেন শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনি এমপি।

আজ ১৫ জুলাই বৃহস্পতিবার সিনেবাজ (বিনোদন এখানেই) সূচনা’র পর প্রতিটি মোবাইলে ডাউনলোড করে যে কেউ ভিজিট করতে পারবে পরহবনধু.পড়স। সিনেবাজ অ্যাপস ডাউনলোড করে যে কেউ বিনামূল্যে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শৈশবকালের ঘটনাপ্রবাহ নিয়ে শাপলা মিডিয়া নির্মিত ও সেলিম খান পরিচালিত ‘টুঙ্গিপাড়ার মিয়া ভাই’ চলচ্চিত্রটি উপভোগ করার সুযোগ পাবে। এছাড়া পর্যায়ক্রমে ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার পরিবারের সদস্যদেরকে নৃশংসভাবে হত্যার ঘটনা নিয়ে নির্মিত ‘আগস্ট ১৯৭৫’ চলচ্চিত্রটি দেখার সুযোগ পাবে সিনেবাজ-এ।

এছাড়াও ভারত ও বাংলাদেশের তারকা শিল্পীদের নিয়ে যৌথভাবে নির্মিত বেশ’টি চলচ্চিত্র সিনেবাজ ডাউনলোড করে দেখার সুযোগ রয়েছে।

এ প্রসঙ্গে সিনেবাজ ও শাপলা মিডিয়া’র অন্যতম কর্ণধার মোঃ সেলিম খান তার প্রতিক্রিয়ায় জানান,সিনেবাজ বিনোদন শুধুমাত্র জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে নির্মিত চলচ্চিত্রগুলো(টুঙ্গিপাড়ার মিয়া ভাই ও আগস্ট ১৯৭৫) বিনামূল্যে দেখার সুযোগ রয়েছে। অন্যান্য চলচ্চিত্রগুলো দেখতে হলে ডাউনলোড ও ভিজিট করার সময় যতসামান্য অর্থ ব্যয় করতে হবে। শুধুমাত্র জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে চলচ্চিত্রগুলো মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে বিনামূল্যে ভিজিট করে উপভোগ করার সুযোগ পাবে।

তিনি বলেন, করোনাকালীন সময়ে চলচ্চিত্র শিল্প অনেকটা স্থবির হয়ে আছে। আমরা চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি, বাংলাদেশের চলচ্চিত্রকে বাঁচিয়ে রাখতে। মোবাইলের মাধ্যমে চলচ্চিত্র প্রেমি দর্শকদের ধরে রাখার জন্য।

তিনি আরো জানান, শাপলা মিডিয়া’র ব্যানারে বাংলাদেশ ও ভারত যৌথভাবে বেশক’টি চলচ্চিত্র নির্মাণ করার পর এখন মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে। আশা করি,করোনাকালীন এ দুর্যোগ কেটে গেলে নির্মিত চলচ্চিত্রগুলো বিভিন্ন প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি দিতে পারবো।

চলচ্চিত্রগুলো হচ্ছে: বিদ্রোহী, কমান্ডো,বিক্ষোভ,লাইভ,অগ্নিবীণা,বুবুজান,লাগ ভেলকি লাগ,মাফিয়া,ছুটি, চোখ ও চক্কর। এ সকল চলচ্চিত্রগুলোতে অভিনয় করেছেন ভারত ও বাংলাদেশের খ্যাতনামা চলচ্চিত্র তারকারা।

Recommended For You

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *